Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

আনজাম মাসুদের পরিবর্তন-এ বিশ্ব উইথ শীষ্য

বিনোদন রিপোর্ট: | প্রকাশের সময় : ১৬ আগস্ট, ২০১৮, ১২:০২ এএম

চিরসবুজ গায়ক কুমার বিশ্বজিৎ আনজাম মাসুদের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘পরিবর্তন’র শুরু থেকেই যুক্ত আছেন। যদিও এরমধ্যে ‘পরিবর্তন’র পঁচিশতম পর্ব প্রচার হয়েছে বিটিভিতে। তবে প্রথম পর্বেই কুমার বিশ্বজিৎ ‘পরিবর্তন’-এ গান গেয়েছিলেন। এরপর আর কুমার বিশ্বজিৎ এই ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানে গান না গাইলেও ‘পরির্বতন’র আগামী ঈদ বিশেষ পর্ব’তে তাকে দেখা যাবে। আনজাম মাসুদের পরিকল্পনায় কুমার বিশ্বজিৎকে ‘বিশ্ব উইথ শীষ্য’ পর্বে কুমার বিশ্বজিৎ’র সঙ্গে তার শীষ্য রাজীব, মাহাদী ও কিশোরকে দর্শক গাইতে দেখবেন। মাহফুজুর রহমান মাহফুজের লেখা ও শেখ সাদী খানের সুর করা ‘তুমি রোজ বিকেলে’, আব্দুল্লাহ আল মামুনের লেখা, নকীব খানের সুর করা ‘তোরে পুতুলের মতো করে’ এবং ডা. সালাহ উদ্দিন সজলের লেখা, কুমার বিশ্বজিৎ’র সুর করা ‘তুমি পাগল বলো’ এই তিনটি গানের সেতু বন্ধন করে কুমার বিশ্বজিৎ’র সঙ্গে গেয়েছেন রাজীব, মাহাদী ও কিশোর। গানটির দৃশ্য ধারণের কাজ শেষ হয়েছে গত ১২ আগস্ট বিটিভি’র প্রধান মিলনায়তনে। আনজাম মাসুদের গ্রন্থনা, পরিকল্পনা, উপস্থাপনা ও নির্দেশনায় নির্মিত ‘পরিবর্তন’র জন্যই এর দৃশ্যধারণ করা হয়েছে যা আগামী ঈদ অনুষ্ঠান মালায় বিটিভিতে প্রচার হবে। তিনটি গানের সেতু বন্ধন এবং শীষ্যদের প্রসঙ্গে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, ‘আনজাম মাসুদকে বিশেষ ধন্যবাদ দিতে হয় এমন চমৎকার একটি পরিকল্পনার জন্য। আমার শীষ্য তিনজন তাদের যোগ্যতা দিয়েই দর্শকের রায়ে নিজেদের একটি অবস্থান গড়ে নিয়েছে। নিশ্চয়ই আগামীতের তাদের এদেশের সঙ্গীতাঙ্গনকে অনেক কিছুই দেবার আছে। তিন গানের সমন্বয়টিতে আমি পাশ্চাত্য, ইÐিয়ান ক্ল্যাসিক ও ল্যাটিন মিউজিকের সংমিশ্রণ করেছি। এই গানে হারমোনাইজেশনের চারটি লেয়ারের উপস্থিতি পাবেন শ্রোতা দর্শক। আমার বিশ্বাস গানটি দারুণ উপভোগ্য হবে।’ আনজাম মাসুদ বলেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনের সত্যিকারের যুবরাজ তিনি। তারসঙ্গে দেশে বিদেশে আমি অনেক শো’তে অংশ নিয়েছি। যে কোন শো’তে কুমার বিশ্বজিৎ দাদা একাই একশো’। তিনি কোন শো’তে উপস্থিত থাকলে আর কারোরই প্রয়োজন হয়না। এই প্রজন্মের শিল্পীদের দাদার কাছ থেকে অনেক কিছুই শিখতে হবে নিজেদের চূড়ান্ত পর্যায়ে নিয়ে যেতে হলে। সার্বিক বিবেচনায় তিনি একজন পরিপূর্ণ মানুষ বলেই তিনি আমাদের কিংবদন্তী।’ রাজীব বলেন,‘ দাদার এই গানগুলো ছোট থেকেই আমার, আমার পরিবারের সবারই প্রিয়। দেশে একমাত্র দাদাই আছেন যার সবগুলো গানই জনপ্রিয়।’ মাহাদী বলেন,‘ দাদা আমাদের সঙ্গে রেখেছেন এটাই অনেক বড় অর্জন।’ কিশোর বলেন,‘দাদা’র সঙ্গে কাজ করা এবং গান গাইতে পারা সৌভাগ্যের বিষয় নিঃসন্দেহে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরিবর্তন

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ