Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

সেক্যুলার শিক্ষা বাদ দিয়ে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে-মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ

প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : স্কুল-কলেজ, মাদরাসার বিভিন্ন শ্রেণীর সিলেবাস থেকে সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণের ধর্ম ইসলাম ও মুসলমানদের ঐতিহ্য ও চেতনা সমৃদ্ধ বিভিন্ন প্রবন্ধ, গল্প, কবিতা ইত্যাদি বাদ দিয়ে তদস্থলে নাস্তিক ও অন্য ধর্মাবলম্বীদের ভাবধারা সমৃদ্ধ বিভিন্ন প্রবন্ধ, গল্প, কবিতা সংযুক্ত করার গভীর ষড়যন্ত্র এদেশের মুসলমানরা মেনে নিবে না। সিলেবাসে যে সমস্ত অবাঞ্ছিত বিষয় সংযুক্ত করা হয়েছে, তা পঁচানব্বই ভাগ মুসলমানের দেশে অপ্রয়োজনীয়।
তিনি বলেন, সেক্যুলার শিক্ষা ব্যবস্থা বাদ দিয়ে ৯৫% মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশে শিক্ষার সকল স্তরে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে। নাস্তিক্যবাদীদের চক্রান্তে ইসলামী শিক্ষা, মুসলমানদের ধর্মীয় বিশ্বাস তাহযীব, তামাদ্দুন বাদ দেয়া বা সংকোচন করা চলবে না। শিক্ষা ব্যবস্থা থেকে ইসলামী ও মুসলিম ঐতিহ্য বাদ দেয়ার চক্রান্ত দেশ প্রেমিক তাওহীদি জনতা বরদাশত করবে না। জীবনের বিনিময়ে হলেও নাস্তিক্যবাদী শিক্ষানীতি বাস্তবায়ন হতে দেয়া হবে না।
গতকাল বুধবার বিকাল ৪টা জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে প্রশ্নপত্রে ইসলাম নিয়ে উপহাস এবং ২০১০ এর শিক্ষানীতির আলোকে ২০১৬ শিক্ষা আইন বাস্তবায়নের প্রতিবাদে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত হাফেজ মাওলানা ক্বারী শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর একথা বলেন। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দলের মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মাদ জাফরুল্লাহ খান, নায়েবে আমীর মাওলানা আবু জাফর কাসেমী, যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুহাম্মাদ আজম খান, মুফতি ফখরুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হান্নান আল হাদী, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, মাওলানা সুলতান মহিউদ্দীন, হাফেজ মাওলানা আবু তাহের, মাওলানা আবুল কাসেম কাসেমী, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, মাওলানা মোহাম্মদ হোসাইন প্রমুখ।
হাফেজ মাওলানা আতাউল্লাহ আরো বলেন, আধুনিক শিক্ষার সাথে ইসলামী শিক্ষা না থাকায় ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবন এক ভয়াবহ চারিত্র্যিক দুর্যোগ ও নৈতিক অবক্ষয়ের কবলে পড়েছে। দেশে খুন-ধর্ষণ, জুলুম-নির্যাতন, সুদ-ঘুষ, দুর্নীতিসহ সব অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ইতিমধ্যেই শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, বর্তমানে দেশে ৩২০৩১টি কলেজ-স্কুল মাদকের ঝুঁকিতে রয়েছে।
মাওলানা জাফরুল্লাহ খান বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নাস্তিক বানাতে আধুনিক ও প্রগতিশীলতার নামে পরিকল্পিতভাবে পাঠ্যবইয়ে, নাস্তিক্যবাদী ও হিন্দুত্ববাদী লেখা সংস্কৃতি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে ঈমানদার জনতাকে সোচ্চার হতে হবে। তিনি ধর্মহীন সেক্যুলার শিক্ষানীতি অবিলম্বে বাতিল করার আহ্বান জানান।
মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেন, প্রথম শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পাঠ্য বইয়ে কবিতা, প্রবন্ধ, নিবন্ধ ও গল্প মোট ১৯৩টির মধ্যে ১৩৭টিই মুসলমানদের কৃষ্টিকালচারের বাইরে, নাস্তিক ও হিন্দুত্ববাদীদের লেখা। আলিয়া মাদরাসায়ও যাদের গদ্য ও কবিতা পাঠ্য তালিকা করা হয়েছে তাদের অধিকাংশই নাস্তিক ও হিন্দু লেখকদের লেখা। তিনি বলেন, বিদ্যমান এই পাঠ্যসূচি পশু স্বভাবের শিক্ষিত অপদার্থ, দুর্নীতিবাজ, লম্পট এবং রক্ষকের বেশে ভক্ষক ছাড়া আর কিছুই তৈরি করবে না।
বক্তারা বলেন, পাঠ্যপুস্তক থেকে ইসলাম ও ইসলামী ভাবধারা মুছে ফেলার সাথে জড়িত মহল এবং প্রশ্নপত্রে ইসলাম ও মুসলমানদের সম্পর্কে বিদ্বেষ ছড়ানোর সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায় দেশপ্রেমিক তাওহীদি জনতা সময় মতো তার জবাব দিবে।
ইসলামী ছাত্র সমাজ
বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় সভাপতি আবদুল্লাহ আল মাসউদ খান বলেন, ধর্মহীন শিক্ষা জাতীয় জীবনে বিপর্যয় ডেকে আনবে। তিনি আরও বলেন, একটি অশুভ শক্তি ধর্মপ্রাণ বাংলাদেশি মুসলমানদের ধর্মহীন করার অপতৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে। নতুন শিক্ষানীতির নামে ধর্মহীন শিক্ষানীতি চালু করে দেশকে নাস্তিকের দেশে পরিণত করার চক্রান্ত চলছে। ইসলামী ছাত্রসমাজ তওহীদি ছাত্রজনতাকে সাথে নিয়ে দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে তা প্রতিহত করবে ইনশাআল্লাহ। আজ বিকাল ৩টায় ৫১, ৫১/এ, পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয় মিলনায়তনে ইসলামী ছাত্রসমাজ ঢাকা মহানগর থানা দায়িত্বশীলদের এক প্রতিনিধি সভায় উপরোক্ত কথা বলেন। কেন্দ্রীয় মহাসচিব মুহাম্মদ নুরুজ্জামানের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন এম আতিকুর রহমান, আমির হোসেন জেহাদী, এহতেশামুল হক, রইছউদ্দিন, আহমদুল্লাহ, রাসেল প্রমুখ ছাত্রনেতৃবৃন্দ। প্রতিনিধি সভা শেষে আগামী শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একটি মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
ইসলামী ঐক্যজোট
ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মাও. আবদুর রকীব এ্যাডভোকেট গতকাল এক বিবৃতিতে আগামীকাল শুক্রবার বাদ জুমা হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগর শাখার প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিল সফল করার আহ্বান জানিয়েছেন।



 

Show all comments
  • আব্দুর রহমান ২১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:৩৯ পিএম says : 0
    এক‌টি জা‌তি উন্নত কর‌তে হ‌লে যেমন শিক্ষার কোন বিকল্প নেই , ঠিক তেম‌নি ক্ষনস্থায়ী জীবন গড়‌তে হ‌লে কোরআন শিক্ষার বিকল্প নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • Aziz ২১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:৫২ পিএম says : 0
    ৫ বছরের জন্য শরীয়া আইন আনা হোক,,
    Total Reply(0) Reply
  • Md Al Mamnun ২১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:৪৯ পিএম says : 0
    এ দাবি পাশ নাহওয়া পর্যন্ত আমরা এই আন্দলন করেই জাবো। ইনশাআল্লাহ্
    Total Reply(0) Reply
  • Saleh Ahmad ২১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:৫২ পিএম says : 0
    ধন্যবাদ সবাইকে
    Total Reply(0) Reply
  • MD Suman ২১ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:৫২ পিএম says : 0
    আমিও একমত।
    Total Reply(0) Reply
  • md anwar ali ২৮ জুলাই, ২০২০, ৭:০৯ এএম says : 0
    শুধু স্কুলেই নয় কলেজের প্রতিটি বিভাগে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করুন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সেক্যুলার শিক্ষা বাদ দিয়ে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে-মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ