Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

এ মুহূর্তে রাজনীতিতে আসা সম্ভব নয় -শাহরুখ খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ আগস্ট, ২০১৮, ৩:৩৫ পিএম

দক্ষিণ ভারতীয় তারকা রজনীকান্ত ও কমল হাসান রাজনীতিতে যোগ দিয়েছেন। তাহলে বলিউড বাদশা শাহরুখ খান রাজনীতিতে আসলে অবাক হওয়ার কিছু আছে কি? তবে না, বলিউডের এ বাদশা এখনি রাজনীতিতে নাম লেখাচ্ছেন না। এ বিষয়ে আপাতত তার কোনো পরিকল্পনাও নেই।

এনডিটিভির এক সাক্ষাৎকারে বলিউড সুপারস্টার এ বিষয়ে খোলামেলা আলোচনা করেছেন। ৫২ বছরের এ সুপারস্টার জানান, অভিনয় দিয়ে সারা ভারতে ভক্তদের মন জয় করলেও রাজনীতি তার জন্য নয়। কারণ, এখনও পর্যন্ত তিনি যথেষ্ট নিঃস্বার্থ নন।

শাহরুখ খান বলেন, একজন বিনোদনকারী হিসাবে আমি যে ধরনের কাজ করি তা আমি ভালোবেসেই করি। কিন্তু রাজনীতি একটা বিশেষ ক্ষেত্র। আর আমার রাজনীতি করার মতো অতটাও জ্ঞান নেই।

তিনি আরও বলেন, অভিজ্ঞ হওয়া প্রয়োজন। আর আমার বিশ্বাস এর জন্য পুরোপুরি নিঃস্বার্থ, নিষ্ঠাবান, কর্মঠ হওয়া প্রয়োজন। যার মাধ্যমে দেশের মানুষের জীবনযাত্রার মান আরও উন্নত হয়, তারা ভালোভাবে বাঁচতে পারে। রাজনীতির অংশ হওয়ার মতো পুরোপুরি নিঃস্বার্থ আমি এখনও হয়ে উঠতে পেরেছি কি না তা আমি নিজেও এখনও জানি না। রাজনীতি করার জন্য আরও বেশি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হওয়া প্রয়োজন, সত্যি বলতে যা এ মুহূর্তে আমার পক্ষে সম্ভব নয়।

দক্ষিণ ভারতীয় তারকা রজনীকান্ত এবং কমল হাসান রাজনীতিতে যোগদান করেছেন- এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তাদের ক্ষেত্রে এটা স্বাভাবিক ছিল। আমি জানি রজনী স্যার এবং কমল স্যার এই প্রসঙ্গে কতটা ভাবেন। এ বিষয়ে বহু বার আমাদের কথা হয়েছে এবং আমি সত্যিই মনে করি তারা রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার আগেও সাধারণ মানুষের জন্য একইভাবে কাজ করে গেছেন।

বলিউড বাদশা আরও বলেন, আমার মতে তারা এ বিষয়টা নিয়ে ভাবনা চিন্তা অনেক আগে থেকেই শুরু করে দিয়েছিল। সুতরাং তাদের স্বাভাবিকভাবেই রাজনীতিতে যোগ দেওয়া উচিত ছিল। আর সাধারণ মানুষ তাদের ভীষণ ভালোবাসে এবং তারাও সাধারণ মানুষের ভালো করতে চান। তবে এর মানে এই নয় যে, সাধারণ মানুষ আমাকে ভালোবাসে না বা আমি তাদের জন্য কিছু করতে চাই না!

বর্তমানে বলিউডের বাদশা শাহরুখ খান তার পরবর্তী ছবি জিরোর ভিএফএক্স নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। পরিচালক আনন্দ এল রাইয়ের ছবিতে তাকে অনুষ্কা শর্মা ও ক্যাটরিনা কাইফের বিপরীতে দেখা যাবে। এছাড়া জিরো মুক্তি পাবে আগামী ডিসেম্বরে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর