Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২৪ জুন ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ পরিচয়ে সুন্দরী বউ অপহরণ

প্রকাশের সময় : ২২ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কুষ্টিয়া থেকে স্টাফ রিপোর্টার : কুষ্টিয়ার মিরপুরে এবার ম্যাজিস্ট্রেট ও ডিবি পুলিশ পরিচয়ে প্রকাশ্য দিবালোকে চাঁদনী খাতুন (১৯) নামে এক সুন্দরী বউকে অপহরনের ঘটনা ঘটেছে। সে ওই গ্রামের আলী ম-লের ছেলে নাঈম মন্ডলের স্ত্রী। সোমবার দুপুরে উপজেলার ছাতিয়ান ইউনিয়নের সারুটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে । গত ৪দিন পেরিয়ে গেলেও অপহৃত গৃহবধূকে পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি। গৃহবধুকে অপহরণের ঘটনা এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
জানা যায়, গত সোমবার দুপুর দেড়টার সময় একটি হাইএক্স মাইক্রোবাস যোগে একদল লোক সারুটিয়া গ্রামের নাইম মন্ডলের বাড়িতে গিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট ও ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে চাঁদনীকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়।
এই ঘটনায় অপহৃতের স্বামী নাঈম মন্ডল বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে ৮ জনকে আসামি করে মিরপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।
আসামিরা হলেন, কুষ্টিয়া সদর থানার কুমারগাড়া গ্রামের জয়নাল আবেদিনের পুত্র মেহেদী হাসান বাপ্পী (২৬), মিরপুর পৌরসভার মোশারফপুর গ্রামের রুস্তম আলীর ছেলে সবুজ আলী (২৫), মিরপুর উপজেলার ছাতিয়ান ইউনিয়নের সরুটিয়া মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত শহর আলী সদ্দারের ২ ছেলে হাশেম আলী (৪৫) ও রাশেদ আলী (৫০), ছাতিয়ান গ্রামের মৃত রমজান আলীর ছেলে গফফার আলী (৫০), মৃত গেদা সর্দারের ছেলে তমিজ আলী (৪৫) ও একই গ্রামের মৃত ফড়ং সর্দারের ২ ছেলে মজিবার রহমান (৪০) ও ফজলুর রহমান (৩৫)।
কুমারখালীতে ইউপি চেয়ারম্যান উদ্ধার ॥ আটক-৪
কুষ্টিয়া কুমারখালী থেকে অপহরণের ৫ ঘন্টা পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে নন্দলালপুর ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান খোকন উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করেছে।
পুলিশের ভাষ্যমতে, বুধবার রাত সাড়ে এগারটার দিকে নন্দলালপুর ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও চেয়ারম্যানপ্রার্থী জিয়াউর রহমান খোকন নির্বাচনী গনসংযোগ শেষে লাহিনীপাড়া অবস্থান করছিলো। এসময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত তার উপর হামলা চালিয়ে  হাত-পা বেধে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। রাতেই দুর্বৃত্তরা জিয়াউর রহমান খোকন এর বাড়ীতে ফোনে ৭ লাখ চাঁদা দাবী করে। ফোন কলের সুত্রধরে পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে অভিযান চালিয়ে লাহিনীপাড়ার একটি বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করে। সেসময় ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ মোয়াজ্জেম হোসেন (৩২), আজিজুল ইসলাম (৩০), রতন (৩৫) ও জহুরুল হক (৪৮)কে আটক করে।
কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউর রহমান, এঘটনায় কুমারখালী থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। শুধুমাত্র টাকার জন্য না বিরোধে এ ঘটনা ঘটেছে তা জানার জন্য আমরা আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি।





 

Show all comments
  • Md Anwar Hossain ২২ এপ্রিল, ২০১৬, ১০:৪০ এএম says : 0
    Where is our security ?
    Total Reply(0) Reply
  • Tarek ২২ এপ্রিল, ২০১৬, ১০:৪১ এএম says : 0
    অপহরণ, খুন, গুম, হত্যা, নির্যাতন, ধর্ষণ, এক্সিডেন্ট ইত্যাদি বাংলাদেশে এখন স্বাভাবিক খবর মনে হচ্ছে।
    Total Reply(1) Reply
    • Kawsir ২২ এপ্রিল, ২০১৬, ৪:০১ পিএম says : 0
      thik bolesen . akhon agulo dal vat hoye gase.
  • আরজু ২২ এপ্রিল, ২০১৬, ৪:০২ পিএম says : 0
    চরম অনিরাপত্তা ও অনিশ্চয়তার মধ্যে আছে দেশ।
    Total Reply(0) Reply
  • Laboni ২২ এপ্রিল, ২০১৬, ৪:০৩ পিএম says : 0
    ar kisu baki roilo na
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ