Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫, ৭ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

আবাদ অর্ধেকে নেমে এসেছে মাগুরায় পাট উৎপাদনে বিপর্যয়

মাগুরা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

মাগুরা জেলায় চলতি মৌসুমে পাটের আবাদ অর্ধেকে নেমে এসেছে। যা আবাদ হয়েছে তাও চরম ফলন বিপর্যয়ের কারণে উৎপাদনে মারাত্মক প্রভাব ফেলবে। মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানায়, মাগুরা জেলায় চলতি মৌসুমে পাট আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধরণ করা হয় ৪১ হাজার ১০ হেক্টর। আবাদ হয়েছে মাত্র ২৯ হাজার ৫শ’ হেক্টর জমিতে। অথচ গত বছর লক্ষমাত্রা ছিল ৪১ হাজার ১০ হেক্টও, আবাদ হয়েছিল ৪০ হাজার ৪শ’ হেক্টর জমিতে। চলতি বছরের লক্ষমাত্রার মধ্যে মাগুরা সদর উপজেলায় ১৩ হাজার ৪শ’ হেক্টর, শ্রীপুর উপজেলায় ১০ হাজার ৩৫ হেক্টর, মহম্মাদপুর উপজেলায় ১০ হাজার ৯শ’ হেক্টর ও শালিখা উপজেলায় ছয় হাজার ৬৭৫ হেক্টর। আবাদ হয়েছে মাগুরা সদর উপজেলায় সাত হাজার ৮শ’ হেক্টর, শ্রীপুর উপজেলায় আট হাজার ২শ’ হেক্টর, মহম্মাদপুর উপজেলায় ৯ হাজার ৮শ’ হেক্টর, এবং শালিখা উপজেলায় তিন হাজার ৭শ’ হেক্টর জমিতে।
মাগুরা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক পার্থ প্রতিম সাহা জানান, পাট আবাদের সময় প্রতিক‚ল পরিবেশের কারণে কৃষকরা পাটের আবাদ কমিয়ে দেন। যারা এর মধ্যেও পাটের আবাদ করে তাদের পাট ও আশানুরূপ ফলন না হওয়ায় এ বিপর্যয়ের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তিনি জানান, অসময়ে বৃষ্টিপাতই এর জন্য দায়ী। তবে চাষিরা জানান ভিন্ন কথা, তারা বলেন, পাটের উপযুক্ত মূল্য না পাওয়া ও পাটের বাজারে চরম বিশৃঙ্খলা তাদের পাট চাষে নিরুৎসাহিত করে তোলে আর এ জন্য পাট আবাদে বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। পাটের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনতে বাজার ব্যবস্থার উন্নয়ন, উপযুক্ত মূল্য প্রাপ্তির নিশ্চয়তা এবং সুশৃঙ্খল বাজার বজায় রাখার জন্য কৃষকরা বলেন।
মাঠে যে পাট রয়েছে তা ইতোমধ্যে কাটা এবং জাগ দেয়া কাজে কৃষরা ব্যস্ত। তবে বাজারে তদারকি না থাকায় ফড়িয়া, দালাল ও আড়তদারদের দাপটে কৃষকরা তাদের পাট স্বাভাবিকভাবে বিক্রি করতে পারবে না এমন আশঙ্কার কথা জানান। পাটকে রক্ষার জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে দেশের গৌরব সোনালি আঁশ রক্ষা করা সম্ভব হবে না এমন কথা বলেন বিশেষজ্ঞরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ