Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

যুক্তরাষ্ট্রকে পাত্তা না দিয়ে অস্ত্র বাড়াচ্ছে ইরান

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে সামরিক শক্তি বাড়াতে মিসাইল, যুদ্ধবিমান ও সাবমেরিন সক্ষমতা বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে ইরান। ইরানের উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ আহাদি ইরানের রাজধানী তেহরানে দেশটির সামরিক কর্মকর্তাদের এক বৈঠকে দেয়া বক্তব্যে এমন পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। প্রজাতন্ত্র ইরানের সংবাদ সংস্থা (ইরনা) শনিবার এ খবর প্রকাশ করেছে। মোহাম্মদ আহাদি বলেন, ব্যালাস্টিক ও ক্রুজ মিসাইল, পরবর্তী প্রজন্মের যুদ্ধবিমান এবং বিভিন্ন অস্ত্র ধারণক্ষমতার নৌ-তরি ও সাবমেরিন বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। মোহাম্মদ আহাদি এমন এক সময় এ বক্তব্য দিলেন যখন পারমাণবিক পরিকল্পনার ব্যাপারে সমঝোতা করতে ফ্রান্সের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান। এছাড়া কয়েকটি দেশের সমন্বয়ে ইরানের সঙ্গে করা পারমাণবিক চুক্তি থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সেই সঙ্গে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এ সপ্তাহের শুরুতে ইরানের আইনজীবী যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধ উঠিয়ে দিতে আন্তর্জাতিক আদালতকে আহ্বান করেন। উল্লেখ্য, ইরানের ওপর আমেরিকার অবরোধ দেশটির অর্থনীতিকে দারুণভাবে পর্যুদস্ত করেছে। এ অবরোধ আরোপ ১৯৫৫ সালে ইরানের সঙ্গে আমেরিকার বন্ধুত্বপূর্ণ চুক্তির লঙ্ঘন বলে দাবি করেছে ইরান। নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ করে আহাদি বলেন, এই অবরোধ আমাদের দেশের অস্ত্র শিল্প প্রসারে কোনো বাধা হতে পারে না। সংবাদ সংস্থা ইরনাকে তিনি আরও বলেন, আমাদের প্রয়োজনীয় অবকাঠামো রয়েছে। এখন দরকার শুধু গবেষণা এবং উন্নয়ন করা। ‘একই সঙ্গে প্রতিরক্ষা শিল্পকে যুগোপযোগী করা হবে। হাজার হাজার গ্র্যাজুয়েটকে ব্যবহারিক এবং ইঞ্জিনিয়ারিং ক্ষেত্রে কাজে লাগানো হবে।’
সিরিয়া ও ইরাকে ইরানের অভিযানের পেছনে যুক্তি তুলে ধরে তিনি বলেন, সেখানে আইএস সন্ত্রাসীদের পরাজিত করাই আমাদের লক্ষ্য। ‘যদি ইরান ও তার মিত্ররা থেমে যেত তবে এই এলাকার মানচিত্র এত দিনে পাল্টে যেত। পৃথিবীকে ভয়াবহ সমস্যায় পড়তে হতো।’ আগস্ট মাসে ইরান জানিয়েছিল, সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তারা যুদ্ধবিমান তৈরি করেছে। একই সময়ে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছিলেন, শত্রুকে ধ্বংস করতে এবং শান্তি প্রতিষ্ঠায় ইরানের সামরিক শক্তি সাজানো হয়েছে।



 

Show all comments
  • Md Alfazuddin ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১১:১৩ এএম says : 0
    Alhamdulillah, Iran you go head, Allah will helf & save you because you are in legal way. May Allah destroy USA, Israel , the ruler of Saudi, Egypt & UAE Ameen summa Ameen
    Total Reply(0) Reply
  • কাশেম ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৩:৫৯ পিএম says : 0
    ইরানের সঠিক সিদধানত যুক্তরাষ্ট্র এর মোড়লগিরি আর কেউ মানবে না.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ