Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

সাময়িক বন্যার আশঙ্কা

শফিউল আলম | প্রকাশের সময় : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

চলতি সেপ্টেম্বর (ভাদ্র-আশ্বিন) মাসে স্বল্পমেয়াদি তথা সাময়িক বন্যা হতে পারে। মাসের শেষ দুই সপ্তাহে এ বন্যা হতে পারে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চল তথা বৃহত্তর সিলেটে এবং দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে তথা বৃহত্তর চট্টগ্রামে। এ মাসে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হতে পারে ১ থেকে ২টি মৌসুমী নিম্নচাপ।    
সেপ্টেম্বর মাসের দীর্ঘমেয়াদি আবহাওয়া পূর্বাভাস প্রদানের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটির সভায় স্বল্পমেয়াদি বন্যার এ সতর্কতা দেয়া হয়েছে। গতকাল (সোমবার) বিকেলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের ঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্র ঢাকায় অনুষ্ঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটির উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক ও বিশেষজ্ঞ কমিটির চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন আহমেদ। সভায় আবহাওয়া-জলবায়ুর সর্বশেষ তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করা হয়।  
সভায় পূর্বাভাসে জানানো হয়, চলতি সেপ্টেম্বর মাসে বাংলাদেশে স্বাভাবিক হারে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে গত আগস্ট (শ্রাবণ-ভাদ্র) মাসে ভরা বর্ষা মৌসুমে সারাদেশে স্বাভাবিকের চেয়ে ৩৬.৩ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। আবার বিভাগওয়ারি বৃষ্টিপাতের হিসাবে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগে স্বাভাবিকের কাছাকাছি বৃষ্টিপাত হয়েছে। অথচ ঢাকা বিভাগে ৪৫.৫ শতাংশ, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৫.৮ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে ৪৫.৪ শতাংশ, রংপুর বিভাগে ৩২.৭ শতাংশ, খুলনা বিভাগে ৪৭.৮ শতাংশ এবং বরিশালে ৪৫ শতাংশ কম হারে বৃষ্টি হয়েছে। গত জুলাই (আষাঢ়-শ্রাবণ) মাসে সারাদেশে প্রায় স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়। গত জুন মাসে দেশে বৃষ্টিপাত হয় স্বাভাবিকের চেয়ে গড়ে ৩ দশমিক ৬ শতাংশ বেশী। গত মে মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে ১৪.৩ শতাংশ বেশী এবং এপ্রিল মাসে ৩৬.৭ শতাংশ বেশী বৃষ্টিপাত হয়। সবমিলে এ বছর ভরা বর্ষায় অনাবৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হয়।
নদ-নদীর অবস্থা   
গতকাল পাউবোর বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানায়, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদের পানির সমতল অপরিবর্তিত রয়েছে। তা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানির সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং তা আগামী ৭২ ঘণ্টায় অব্যাহত থাকতে পারে। আপার মেঘনা অববাহিকায় সুরমা-কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ২৪ ঘণ্টায় অব্যাহত থাকতে পারে।
পাউবোর আওতায় দেশের ৯৪টি পানির সমতল পর্যবেক্ষণ স্টেশনের মধ্যে গতকাল ৫৮টি পয়েন্টে পানি বৃদ্ধি পায়। পানি হ্রাস পায় ৩০টি পয়েন্টে। অন্যদিকে গত রোববার ৪৬টি পয়েন্টে পানি বৃদ্ধি এবং ৪০টিতে হ্রাস পায়। গত শনিবার ৪১টি পয়েন্টে পানি বৃদ্ধি, ৪৬ পয়েন্টে হ্রাস পায়। গত শুক্রবার ৩২টি পয়েন্টে পানি বৃদ্ধি ও ৫৪টিতে হ্রাস পায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ