Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

বৈচিত্রের খোঁজে রনি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

এশিয়া কাপের চূড়ান্ত দলে জায়গা পেয়েছেন। আবু হায়দার রনি বাংলাদেশের একাদশে সুযোগ পাবেন কি না, তা অবশ্য নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে সুযোগ পেলে নিজের সেরাটা উজার করে দিতে চান বাঁহাতি এই পেসার। অনুশীলনে নিজেকে সেভাবেই প্রস্তুত করছেন।
গত মাসে ফ্লোরিডায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের শেষ দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে খেলেছেন রনি। দুই ম্যাচ মিলিয়ে মাত্র একটি উইকেট পেলেও বোলিংটা খারাপ করেননি। প্রথম ম্যাচে বোলিং উদ্বোধন করে ৪ ওভারে দিয়েছিলেন ২৬ রান। পরের ম্যাচে ৩ ওভারে ২৭ রানে নেন একটি উইকেট। আত্মবিশ্বাসের তাই কমতি নেই তার। মিরপুরে গতকাল অনুশীলনের পর এশিয়া কাপে নিজের লক্ষ্য নিয়ে রনি বলেছেন, ‘আমার ব্যক্তিগত লক্ষ্য বলতে যদি বলি, ম্যাচ খেলব কি না, এখনো নিশ্চিত না। এটা টিম ম্যানেজমেন্টের ব্যাপার। এখন অনুশীলন চলছে, অনুশীলনে নিজেকে ভালোভাবে প্রস্তুত করা এখন আমার লক্ষ্য। আর যদি সুযোগ পাই তাহলে কীভাবে নিজের সেরাটা দিতে পারি।’ সেই আত্মবিশ্বাসে যে ঘাটতি নেই সেটিও জানিয়ে দিলেন ২২ বছর বয়সী এই গতি তারকা, ‘আমার আত্মবিশ্বাস খুব ভালো আছে। এখন পর্যন্ত খুব ভালো বোলিং হচ্ছে। শেষ দুটি সিরিজও খুব ভালো বোলিং হয়েছে। আমি চেষ্টা করব ওই ধারাটাই যেন ধরে রাখতে পারি। অনুশীলনেও খুব পরিশ্রম করছি। যদি সুযোগ পাই সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’
বাংলাদেশের এশিয়া কাপের দলে পেসার চারজন- মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও রনি। এর মধ্যে রনির অভিজ্ঞতাটাই একটু কম। তিনি তাই অন্যদের থেকে শিখছেন, ‘জাতীয় দলে যারা আছে সবাই প্রতিষ্ঠিত বোলার। এর মধ্যে আমার অভিজ্ঞতা একটু কম। আমি চেষ্টা করছি এখান থেকে যতটুকু পারা যায়, নিজেকে অভিজ্ঞ করা যায়। সিনিয়রদের দেখে যতটুকু শেখা যায়।’ সবার মধ্যে ভালো করার যে একটা অদৃশ্য প্রতিযোগিতা থাকে, সেটাও উপভোগ করেন রনি, ‘চারজন পেস বোলার আছি আমরা। তিনজন বা দুজন ভালো করছে। এটা আমার মধ্যেও তাগিদ আসে যে আমাকেও ভালো করতে হবে। জাতীয় দলে থাকতে হলে, ম্যাচ খেলতে হলে অনেক ভালো করতে হবে। এটা দলের মধ্যে একটা ভালো ব্যাপার যে অভিজ্ঞতা অর্জন করা, ভালো করার চেষ্টা করা। এটা উপভোগ করছি।’
পাশাপাশি নিজের বোলিং বৈচিত্র্য নিয়েও কাজ করছেন রনি, ‘বৈচিত্র্য নিয়েও কাজ হচ্ছে। আগে যেমন অফ কাটারটাও মারতাম, এখন ব্যাক অব দ্য হ্যান্ড, নাকল বলটাও চেষ্টা করছি। ইয়র্কারগুলা চেষ্টা করছি। পারফেকশন আনার চেষ্টা করছি। হয়ত একদিনে হবে না। দিনকে দিন অনুশীল করতে করতে আসবে।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর