Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌
শিরোনাম

শ্রম আইন বাস্তবায়নে স্কপের না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

মন্ত্রিসভায় গৃহীত শ্রম আইনের সংশোধনী শ্রমিকদের গণতান্ত্রিক আকাংখার সাথে সংগতিপূর্ণ নয় এবং এটা অগ্রহণযোগ্য বলে মন্তব্য করেছে শ্রমিক কর্মচারি ঐক্য পরিষদ (স্কপ)। সংগঠনের নেতৃবৃন্দ গতকাল এক বিবৃতিতে মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত শ্রম আইনের সংশোধনীকে অগ্রহণযোগ্য হিসেবে অবিহিত করে এই আইন বাস্তবায়ন থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে।
স্কপের যুগ্ম সমন্বয়কারী শুকুর মাহমুদ এবং নইমুল আহসান জুয়েল বলেছেন, এই সংশোধনী আইএলও কনভেনশন ৮৭ ও ৯৮ এর সাথে সংগতিপূর্ণ নয়। স্বাধীনভাবে সংগঠন করা এবং পছন্দমত নেতা নির্বাচন করার আইএল ও স্বীকৃত অধিকারের জন্য বাংলাদেশের শ্রমিক শ্রেণি দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে। ২০০০ এর বেশি শ্রমিক যে সমস্ত কারখানায় আছে সেখানে ২০ শতাংশ শ্রমিক সদস্য নিয়ে ইউনিয়ন করার বিধান করা হচ্ছে বলে প্রচার করা হলেও ২০০০ এর কম শ্রমিকের কারখানায় আগের বিধানই কার্যকর থাকবে। শ্রম আইনের ২৩, ২৬, ১৮০ ধারা বহাল থাকলে ইউনিয়ন করা যে কার্যত অসম্ভব তা শ্রমিক সংগঠনগুলো দীর্ঘদিন ধরেই উপলব্ধি করছে।
কর্মক্ষেত্রে নিহত শ্রমিকের ক্ষতিপূরণের পরিমাণ ২ লাখ নির্ধারণ করাকে নেতৃবৃন্দ জীবনের সঙ্গে উপহাস করার সামিল মন্তব্য করে বলেন, রানা প্লাজা ধসের পর হাইকোর্টের নির্দেশে গঠিত কমিটি ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণের সুপারিশ করেছিল। স্কপের পক্ষ থেকে কর্মক্ষেত্রে নিহত শ্রমিকের জন্য আজীবন আয়ের সমান ক্ষতিপূরণ নির্ধারণের দাবি জানানো হয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। কিন্তু মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত আইনে তা উপেক্ষা করা হয়েছে। নারী শ্রমিকদের প্রসুতিকালীন ছুটি সরকারি কর্মচারীদের সাথে সঙ্গতি রেখে ৬ মাস করার দাবি দীর্ঘদিনের। এবারও তা উপেক্ষা করা হল। কিশোর শ্রমিকদের কাজে নিয়োগের সুযোগ রাখায় মালিকরা ১৮ বছরের নিচের শ্রমিক নিয়োগ করতে পারবে আইনের মারপ্যাচে। এ ছাড়াও শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে সংশোধনের জন্য যে সব প্রস্তাব প্রদান করা হয়েছিল তা বিবেচনায় নেয়া হয়নি। দীর্ঘদিন ধরে স্কপ এবং শ্রমিক সংগঠনগুলো শ্রম আইনের গণতান্ত্রিক সংশোধনের জন্য দাবি জানিয়ে আসছে। বাংলাদেশের সংবিধান, আইএল ও কনভেনশন, অতীতের অর্জিত অধিকারসমূহ বিবেচনা করে সংসদে পাশ করার আগেই শ্রম আইনের শ্রমিক স্বার্থ বিরোধী ধারা বাতিল করতে হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ