Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

পশ্চিম তীরকে দু’ভাগ করবে ইসরাইল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

দখলকৃত পশ্চিম তীরে একটি বেদুইন গ্রাম নিশ্চিহ্ন করে সেখানকার ১৮০ জন ফিলিস্তিনি নাগরিককে জোর করে সরিয়ে দিতে সেনাবাহিনীকে সবুজ সংকেত দিয়েছে ইসরাইলের একটি আদালত। বেদুইন গ্রামটি নিশ্চিহ্ন করার মাধ্যমে পশ্চিম তীরকে দু’ভাগে ভাগ করে ফেলতে সক্ষম হবে ইসরাইল। ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ আদালতের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেও মানবাধিকার গ্রæপ ও ফিলিস্তিনি নাগরিকরা এই সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা এখবর জানিয়েছে। জেরুজালেমের বড় দুই অবৈধ বসতি মালে আদুমিম ও কাফফার আদুমিম এর কয়েক কিলোমিটারের মধ্যে নিশ্চিহ্ন করতে চাওয়া খান আল আহমার গ্রামটি অবস্থিত। ওই দুটি বসতিই সম্প্রসারণ করতে চাইছে ইসরাইল সরকার। খান আল আহমার গ্রামটিতে মূলত বেদুইন জাহালির উপজাতির বাস। ১৯৫০’র দশকে এই বাসিন্দাদের তাদের নিজ ভূমি নাকাব মরুভূমি থেকে বিতাড়িত করে ইসরাইলি সেনাবাহিনী। খান আল আহমারে বসতি গড়ার আগে তাদের অন্তত দুইবার নিজেদের বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হয়। চারপাশে ইসরাইলি অবৈধ দখলের মধ্যে ১৯৯৩ সালের অসলো চুক্তিতে ‘এরিয়া সি’ নামে পরিচিত গ্রামটিতে ৪০টি ফিলিস্তিনি পরিবার তাঁবু ও খুপড়ি ঘরে বসবাস করে। ‘এরিয়া সি’ তে পশ্চিম তীরের ৬০ শতাংশ এলাকা চিহ্নিত করা আছে। হারেৎজ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসরাইল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ