Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমে বেনামি লেখকের নিবন্ধে তোলপাড়

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

অভূতপূর্ব এক পদক্ষেপে নিউ ইয়র্ক টাইমস নাম প্রকাশ না করে মার্কিন প্রশাসনের এক সিনিয়র কর্মকর্তার লেখা একটি নিবন্ধ প্রকাশ করেছে তাদের উপ-সম্পাদকীয় পাতায়, যেখানে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে একজন ‘অস্থিরমতি’ ব্যক্তি হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে; বলা হয়েছে, তাকে হোয়াইট হাউজ থেকে সরাতে কেবিনেট সদস্যদের মধ্যেই একটি ‘নীরব প্রতিরোধ’ চলছে। নিউ ইয়র্ক টাইমস লিখেছে, ট্রাম্প প্রশাসনের পাশাপাশি পুরো যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যমেই ওই বেনামি লেখকের নিবন্ধ তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। ওই নিবন্ধে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ‘অনৈতিক’ ও ‘আবেগতাড়িত’ আচরণের কারণে অপরিণামদর্শী নানা সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে মার্কিন প্রশাসনকে। বিবিসি লিখেছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নাম প্রকাশ না করা ওই কর্মকর্তাকে বর্ণনা করেছেন একজন ‘ভীরু’ লোক হিসেবে; আর নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেছেন ‘ভুয়া’। ট্রাম্পের প্রেস সেক্রেটারি বলেছেন, রহস্যময় ওই লেখক একজন কাপুরুষ, তার পদত্যাগ করা উচিৎ। তবে নিজেদের অবস্থানে অটল থাকার কথা জানিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস এক বিবৃতিতে বলেছে, “লেখাটি প্রকাশ করতে পেরে আমরা গর্বিত। ট্রাম্প প্রশাসনের ভেতরে আসলে কী চলছে তা বুঝতে সাধারণ পাঠকের জন্য এই লেখা সহায়ক হবে।” এই নিবন্ধ প্রকাশিত হওয়ার হওয়ার ঠিক আগের দিন ওয়াশিংটন পোস্টের বিখ্যাত সাংবাদিক বব উডওয়ার্ডের প্রকাশিতব্য একটি বইয়ের অংশবিশেষ সংবাদমাধ্যমে আসে। সেখানে বলা হয়, হোয়াইট হাউজের কিছু কর্মকর্তা একটি ‘প্রশাসনিক অভ্যুত্থানচেষ্টায়’ জড়িত, যারা প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে দেশকে রক্ষা করতে চাইছেন। ট্রাম্প সই করার আগেই তার টেবিল থেকে তারা জরুরি নথিপত্র সরিয়ে ফেলছেন। বব উডওয়ার্ডের বইয়ের সেই ‘প্রশাসনিক অভ্যুত্থানচেষ্টার’ খবর যে সঠিক, তার সমর্থন পাওয়া গেল নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত নিবন্ধে। সেই লেখক বলেছেন, তিনি লিবারেলদের কেউ নন। যে লক্ষ্যে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিচ্ছে, তার সঙ্গেও তিনি একমত। কিন্তু বাস্তবতা হল, সেসব লক্ষ্য অর্জনে প্রেসিডেন্টের কোনো কৃতিত্ব নেই, বরং তিনি থাকার পরও সেসব লক্ষ্য অর্জন একটি সাফল্য। বিবিসি, নিউ ইয়র্ক টাইমস।



 

Show all comments
  • ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৭:১৯ এএম says : 0
    সনএাসৗ মাতাল ডোনাল টাম যত তাড়া তাড়ি সরে যাবে ততই সবাইর জন্ম মংগল.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।