Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯, ০১ শ্রাবণ ১৪২৬, ১২ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

কয়রায় পিকআপ চালক হত্যায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৩ জনের নামে মামলা

কয়রা (খুলনা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

খুলনার কয়রায় পিকআপ চালক সেলিম শেখ হত্যার ঘটনায় স্থানীয় আমাদি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আমীর আলী গাইন ও তার ছেলে জেলা পরিষদের সদস্য হাবিবুল্লাহ বাহার সহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে কয়রা থানায় ১ টি হত্যা মামলা হয়েছে। যার মামলা নং-৫ তাং-৫-৯-১৮ ইং।
পুলিশ জানায়, বুধবার রাত ৯ টার দিকে নিহত সেলীম শেখের মা মর্জিনা বেগম বাদী হয়ে কয়রা থানায় ১ টি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে মনিরুজ্জামান মনির নামের এক ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে। গত ২১ আগষ্ট উপজেলার জায়গীরমহল গ্রামে একটি মাছের খামারে পিকআপ থেকে মাছের খাবার নামাতে গিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে পিকআপ চালক সেলীম শেখকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার ১৫ দিন পর মাছের খামারের মালিক ইউপি চেয়ারম্যান আমির আলী গাইন,তার ছেলে হাবিবুল্লাহ ও স্থানীয় ইউপি সদস্য বিশ্বজিৎ সিনহা সহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার বাদী মর্জিনা বেগম অভিযোগ করেন, মামলা না করতে তাদেরকে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করা হয়। যে কারনে মামলা করতে বিলম্ব হয়েছে।
কয়রা থানার অফিসার ইনচার্জ তারক বিশ্বাস জানান, নিহত পিকআপ চালকের বাড়ি জেলার রূপসা উপজেলার পিঠাভোগ গ্রামে। কয়রা থেকে তাদের বাড়ি অনেক দুর হওয়ায় ঘটনার পর নিহতের পরিবারকে থানায় আসার জন্য খবর পাঠানো হলে তারা কালক্ষেপন করায় মামলা নিতে দেরি হয়েছে।
মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা কয়রা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাঈদ-আল মামুন জানান,মামলার এজাহারভূক্ত আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা


আরও
আরও পড়ুন