Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ইদলিবে অস্ত্রবিরতিতে রাজি নয় ইরান রাশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১১:০০ এএম

সিরিয়ায় বিদ্রোহীদের সর্বশেষ ঘাঁটি ইদলিবে অস্ত্রবিরতি ঘোষণায় একমত হতে পারেনি তুরস্ক, ইরান ও রাশিয়া। প্রদেশটিতে মানবিক বিপর্যয় ঘটতে পারে বলে ইতিমধ্যে আশঙ্কা করেছে জাতিসংঘ।

সিরিয়ার যুদ্ধের তিন মূল খেলোয়াড় তুরস্কের রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান, রাশিয়ার ভ্লাদিমির পুতিন ও ইরানের হাসান রুহানি শুক্রবার তেহরানে বৈঠক করেন।

পরে এক বিবৃতিতে তারা বলেছেন, সামরিকভাবে এ যুদ্ধের সমাধান হবে না। রাজনৈতিক পথেই এগতে হবে।

এদিকে শুক্রবার ভোরেই সিরীয় সরকার ও রাশিয়ার যুদ্ধবিমান ইদলিবে হামলা শুরু করেছে। এতে করে সেখানে পূর্ণমাত্রায় সহিংসতার উপক্রম হয়েছে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান ইদলিবে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানালে রাশিয়া ও ইরানের প্রেসিডেন্ট তা প্রত্যাখ্যান করেন।

এরদোগান বলেন, সেখানে ব্যাপক হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে বলে তিনি শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তুরস্ক অতিরিক্ত শরণার্থী ঢল সামাল দিতে পারবে না।

পুতিন বলেন, উগ্রপন্থী গোষ্ঠীগুলোকে যুক্ত না করে সেখানে অস্ত্রবিরতি ঘোষণা হবে অর্থহীন। আর রুহানি বলেন, সিরিয়াকে অবশ্যই তার ভূখণ্ডের ওপর পূর্ণ কর্তৃত্ব নিতে হবে।

সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশটিই এখন বিদ্রোহী এবং জিহাদি গোষ্ঠীগুলোর শেষ ঘাঁটি হওয়ার কারণে অনেক ঝুঁকি নিয়েও সেখানে যুদ্ধ থেকে পিছু হটতে রাজি নয় সিরিয়া এবং রাশিয়া।

কিন্তু জাতিসংঘের হিসাবমতে, ইদলিবের জনসংখ্যা ২৯ লাখ। এর মধ্যে ১০ লাখই শিশু। তাই সেখানে বেপরোয়া হামলায় প্রাণহানি নিয়ে উদ্বেগ আছে।



 

Show all comments
  • ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৫:৪০ পিএম says : 0
    সনএাসৗ রাষ্ট্র আমেরিকা এবং ইসরায়েল সনএাসৗদের অসএ সহ বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দিছেচ এবং রাসায়নিক হামলা চালানোর জন্য আমেরিকার সৈন্যরা সেই সেখানে বসে আছে কাজেই সনএাসৗ রাষ্ট্র আমেরিকা কে এই বার কঠিন জবাব দিতেই হবে সিরিয়া জোটের.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।