Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২১ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরু

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) থেকে এম এ জলিল সরকার | প্রকাশের সময় : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:৩৯ এএম

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি থেকে পুনরায় কয়লা উত্তোলন শুরু হয়েছে। ৩ মাস বন্ধ থাকার পর শুক্রবার রাত সাড়ে ৯ টা থেকে শনিবার সকাল ৬ ট পর্যন্ত ৫২৯ দশমিক ৫০০ মে. টন কয়লা ভূ- গর্ভ থেকে উত্তোলিত হয়। দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে ১২ থেকে ১৫শ মে. টন কয়লা উত্তোলন হবে । এরপর থেকে প্রতিদিন ২ হাজার থেকে ২২শ মে. টন কয়লা উত্তোলন হবে। এ কয়লা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসন হল। ওইদিন খনির ১৩১৪ নম্বর কোল ফেইজ হতে পরীক্ষমূলকভাবে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়। এর আগে গত ১৫ জুন খনির উৎপাদনশীল ১২১০ নম্বর কোল ফেইজের উৎপাদনযোগ্য কয়লার মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় ১৬ জুন থেকে খনির কয়লা উত্তোলন বন্ধ হয়ে যায়। একই সময় খনির কোলইয়ার্ড ও কয়লাভিত্তিক ৫২৫ মেগাওয়াট বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লার মজুদ শুন্যের কোটায় নেমে আসে। এতে কয়লার অভাবে গত ২২ জুলাই বড়পুকুরিয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। ফলে উত্তরাঞ্চলের ৮ জেলায় বিদ্যুতের ভয়াবহ লো-ভোল্টেজ ও লোডশেডিং সমস্যায় পড়তে হয়।
খনির কয়লা মজুদের হিসাবে গরমিল ও ১ লাখ ৪৪ হাজার ৬৪৪ মে.টন কয়লা ঘাটতির ঘটনা প্রকাশ হয়ে পড়লে সারাদেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এমন পরিস্থিতিতে খনির চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান, খনি কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশি খনি শ্রমিকদের ঐকান্তিক চেষ্টায় নির্ধারিত সময়ে ১০ সেপ্টেম্বর বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির ১৩১৪ নম্বর ফেইজ থেকে কয়লা উত্তোলন আগেই শুরু হয়ে গেল। বাংলাদেশি খনি শ্রমিকরা তারও আগে ৮ সেপ্টেম্বর থেকে পরীক্ষামূলকভাবে কয়লা উত্তোলন শুরু করেছে। শনিবার দুপুরে ফোনে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ফজলুর রহমান এসব কথা জানান।
খনির মহাব্যবস্থাপক (মাইনিং) সাইফুল ইসলাম সরকার বলেন, কয়লার অভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়া বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের তিনটি ইউনিট দ্রæত চালু করতে জোর তৎপরতা চলছে। গত ২৬ আগষ্ট বিকেলে খনির প্রশাসনিক ভবনে পিডিবি, চীনা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সিএমসি-এএমসি কনসোর্টিয়াম ও বিসিএমসিএল’র মধ্যে অনুষ্ঠিত ত্রিপক্ষীয় বৈঠক হয়। বৈঠকে ১০ সেপ্টেম্বর বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরুর সিদ্ধান্ত হয়। সিদ্ধান্তটি ইতিমধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকার তথা জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় এবং পেট্রো-বাংলা কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কয়লা উত্তোলনের পেছনে শ্রমিক কর্মচারিদের অনেক অবদান রয়েছে ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কয়লা

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
২৭ আগস্ট, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ