Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ১০ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

জমি অধিগ্রহণে তালিকার নির্দেশ

পায়রা নদীতে সেতু নির্মাণে

আমতলী (বরগুনা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৫ এএম

পায়রা/বুড়েশ^র নদীতে সেতু নির্মাণে জমি অধিগ্রহণের জরিপ শেষে তালিকা তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগ। ফলে সেতু নির্মাণ কাজ একধাপ এগিয়ে যাওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলের ৩০ লক্ষাধিক মানুষের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে। গতকাল এ চিঠির খবরে আমতলী মানুষের মাঝে আনন্দের বন্যা বইছে।
পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে মংলা সমুদ্রবন্দরের সংযোগ সহজীকরণ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী সংসদীয় আসন আমতলী-তালতলীর সাথে জেলা শহর বরগুনার যোগাযোগের জন্য পায়রা নদীর উপর সেতু নির্মাণের প্রস্তাব চ‚ড়ান্তভাবে অনুমোদন দিয়েছে একনেক। আমতলীর পায়রা নদীর এ সেতুটি নবম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু নামে পরিচিত হবে। এ অঞ্চলের মানুষের প্রাণের দাবি ছিল পায়রা নদীতে সেতু নির্মাণ। সেতু নির্মিত হলে দক্ষিণাঞ্চলের ৩০ লক্ষাধিক মানুষের স্বপ্ন পূরণ হবে। সেতু নির্মাণের কাজকে দ্রুত গতিতে এগিয়ে নেয়ার জন্য সেতু বিভাগ পায়রা নদীতে সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দিয়েছে। এ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান বর্তমানে প্রস্তাবিত সেতুর সংযোগ সড়কের দুই পাশে অধিকৃত জায়গাতে অবস্থিত স্থাপনা, ব্যবসপ্রতিষ্ঠান ও গাছপালার উপর আর্থ সামাজিক জরিপ এবং জমির মূল্য নির্ধারণী জরিপ পরিচালনার নির্দেশ দিয়েছেন সেতু বিভাগ। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগের চার সেতু সম্ভাব্যতা যাচাই প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো. তোফাজ্জেল হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়। ওই চিঠিতে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানকে জরিপ কাজে সহযোগিতা করার জন্য আমতলী পৌরমেয়র মতিয়ার রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।
দক্ষিণাঞ্চলের যোগাযোগ, ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে পায়রা নদীর সেতু হবে নতুন দিগন্তের সূচনা। অল্প খরচে পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে মংলা সমুদ্রবন্দরে পন্য আনা ও নেয়া করা যাবে। দক্ষিণাঞ্চলের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। এই পায়রা নদীর প্রশস্ত সাড়ে তিন কিলোমিটার। সেতুটি নির্মাণ হলে ওই যানবাহন চলাচলে মানুষের আর ভোগান্তি পোহাতে হবে না।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ