Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

৬৯৮ মিনিট পর জিরুর গোল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

রাশিয়া বিশ্বকাপ জিতে সোনালী ট্রফিতে চুমু খেয়েছেন। এরপরও একটা আক্ষেপ রয়ে যায় অলিভার জিরুর। একজন স্ট্রাইকারের কাছে গোল না পাওয়ার চেয়ে বেদনার আর কি-ই বা হতে পারে। গোল তো দুরের কথা রাশিয়ায় প্রতিপক্ষের পোস্টে যে কোন শটই রাখতে পারেননি। অবশেষে সেই খরা কেটেছে চেলসি স্ট্রাইকারের। ১১ ম্যাচ আর ৬৯৮ মিনিট পর ফ্রান্সের হয়ে গোলের দেখা পেয়েছেন জিরু। সঙ্গে কিলিয়ান এমবাপের গোলে উয়েফা নেশনস কাপে পরশু রাতে নেদারল্যান্ডসকে ২-১ গোলে হারিয়েছে দিদিয়ের দেশমের দল।
বিশ্বকাপের পর উয়েফা নেশনস কাপে জার্মানির বিপক্ষে খেললেও নিজেদের মাঠে এদিনই প্রথম মাঠে নামে বিশ্বজয়ী ফ্রান্স। সেই অর্থে বিশ্বকাপ জয়ী দলের জন্য এটাকে পূনর্মীলনি ম্যাচও বলা চলে। এক পার্টি-পার্টি ভাবের মধ্যেই ঘরের মাঠে নায়কদের খেলতে দেখল ফরাসিরা। সেটা আরো আনন্দঘন হয়ে থাকল জিরুর গোলে দারুন জয়ের কল্যাণে।
আলোচনাটা জিরুকে নিয়ে হলেও দিনটি ছিল আসলে কিলিয়ান এমবাপের। কেন তাকে ভবিষ্যতের তারকা ভাবা হচ্ছে তার প্রমাণ এদিনও দিয়েছেন ১৯ বছর বয়সী। বিশ্বকাপের সেরা উঠতি তারকা গতি দিয়ে এদিনও ভক্ত-সমর্থকদের মুগ্ধ করেছেন। ম্যাচের চতুর্দশ মিনিটে এই পিএসজি ফরোয়ার্ডের গোলেই এগিয়ে যায় ফ্রান্স। রাশিয়া বিশ্বকাপে সুযোগ না পাওয়া নেদারল্যান্ডস সমতায় ফেরে দ্বিতীয়ার্ধে রায়ান বাবেলের গোলে। কিন্তু ১৬ মিনিট বাকি থাকতে জিরুদের করা গোলটি আর শোধ দিতে পারেনি ডাচরা।
আসরের প্রথম ম্যাচে জার্মানির বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে ফ্রান্স। সেই একই একাদশ এদিন নামিয়েছিলেন দেশম। রাশিয়া বিশ্বকাপের দল থেকে ছিলেন না কেবল ইনজুরি আক্রান্ত গোলরক্ষক হুগো লরিস।
জয় তো বটেই দেশম বেশি খুশি জিরুর গোলখরা কাটায়, ‘আমি আসলে সব মিলিয়ে জিরুর উপর সন্তুষ্ট। যেকোন স্ট্রাইকারের ক্যারিয়ারেই এমন গোল খরার সময় আসতে পারে। কিন্তু সে আমাদের দলে ভূমিকা রাখছে। আজ সে দুর্দান্ত খেলেছে। যে গোল আমাদের জয় পেতে সাহায্য করেছে।’
তবে রাতটা ওয়েলসের জন্য সুখের ছিল না। দ্বিতীয় সারির ডেনমার্ক দলের কাছেও ২-০ গোলে হেরেছেন গ্যারেথ বেল-অ্যারোন রামসিরা। ফেডারেশনের সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে জাতীয় দলের সিনিয়র খেলোয়াড়রা আগের দিন স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ খেলতে অস্বীকৃতি জানায়। ফলে সেদিন দ্বিতীয় সারির দল নামাতে বাধ্য হয় ড্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন। এই দলে ছিলেন বিক্রয় প্রতিনিধি, ছাত্র ও ইন্টারনেট বিশেষজ্ঞও। ম্যাচটি ৩-০ গোলে হেরে যায় ডেনমার্ক।
তবে পরশু টটেনহাম মিডফিল্ডার ক্রিশ্চিয়ান এরিকসনের জোড়া গোলে সহজেই রায়ান গিগসের ওয়েলসকে হারায় ডাচরা। সহজেই এই কারণে, শুধু গোল ব্যবধানে নয়, ঘরের মাঠে বলের দখল এমনকি আক্রমণেও এগিয়ে ছিল ডেনমার্ক।
একই রাতে প্রীতি ম্যাচে পেরুকে ২-১ গোলে হারায় জার্মানি।

এক নজরে ফল
ইউক্রেন ১ : ০ স্লোভাকিয়া
ডেনমার্ক ২ : ০ ওয়েলস
ফ্রান্স ২ : ১ নেদারল্যান্ডস
বুলগেরিয়া ১ : ০ নরওয়ে
জর্জিয়া ১ : ০ লাটভিয়া
মেসিডোনিয়া ২ : ০ আর্মেনিয়া
সাইপ্রাস ২ : ১ স্লোভেনিয়া
লিখটেনস্টেইন ২ : ০ জিব্রাল্টার



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ