Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, ১৫ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

‘কোম্পানির মাধ্যমে বাস চালাতে ২ বছর লাগবে’

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১:০১ এএম

রাজধানীর গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনতে কোম্পানির অধীনে বাস পরিচালনা শুরু করতে আরো দুই বছর লাগতে পারে বলে জানিয়েছেন এ সংক্রান্ত নবগঠিত সমন্বয় কমিটির আহবায়ক ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। গতকাল সোমবার নগর ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। এ সময় সমন্বয় কমিটির সদস্য সচিব ও ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমানসহ ডিএসসিসির বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
জানা গেছে, রাজধানীর যানজট নিরসন এবং গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে চার দলীয় জোট সরকার ২০০৪ সালে কৌশলগত পরিবহন পরিকল্পনায় (এসটিপি) গ্রহণ করে। এতে তিনটি মেট্রোরেল ও বাসের জন্য তিনটি পৃথক লেন (বিআরটি) নির্মাণের সুপারিশ ছিল। নির্ধারিত সংখ্যক কোম্পানির মাধ্যমে একটি রুটে কেবল একটি কোম্পানির বাস চালানোর পরিকল্পনা নেয়া হয়। এতে একই রুটের বাসগুলোর মধ্যে অসুস্থ প্রতিযোগিতা থাকবে না। কিন্তু প্রায় ১৪ বছর পেরিয়ে গেলেও গণপরিবহনে এসটিপির এই সুপারিশ বাস্তবায়ন করা যায়নি। তবে ছয় বছর আগে আজিমপুর-উত্তরা রুটে ‘বাস রুট ফ্রাঞ্চাইজ’ (বিআরটি) করা হয়েছিল। কিন্তু অর্থলোভী পরিবহন মালিকদের কারণে বিআরটি ব্যর্থ হয়ে যায়। এরপর থেকে চরম বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে চলছে নগরীর গণপরিবহন।
ডিএনসিসির মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর আনিসুল হক ২০১৬ সালের প্রথম দিকে এক সভায় সংশোধিত এসটিপি অনুযায়ী আবারো নগরীতে কোম্পানির মাধ্যমে বাস পরিচালনার উদ্যোগের কথা জানান। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি রয়েছে জানিয়ে তিনি ওই সময় বলেন, এজন্য কাজ শুরু হয়েছে। গত বছরের নভেম্বরে আনিসুল হকের ইন্তেকালের আগে এ ব্যাপারে কাগজপত্র তৈরি করে গিয়েছিলেন। কাজও প্রায় শেষ পর্যায়ে ছিল। কিন্তু তার ইন্তেকালের পর এ সংক্রান্ত কাজের অগ্রগতি থমকে যায়। সর্বশেষ গত রোববার দক্ষিণের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে আহবায়ক করে ১০ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। এজন্য এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে জানাতে গতকাল সোমবার নগর ভবনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন মেয়র। এ সময় সাঈদ খোকন বলেন, কমিটি খুব দ্রুত কাজ শুরু করবে। এ মাসের শেষ সপ্তাহে একটি সভা হবে। সভায় বাস রুট রেশনালাইজেশন ও কোম্পানির মাধ্যমে বাস পরিচালনা পদ্ধতি সম্পর্কে আনিসুল হকের দেয়া প্রস্তাবনা ও কাজের অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হবে। মেয়র আনিসুল হকের সময় এনিয়ে একটি ড্রাফট করাই আছে। এটি আমরা দেখব। কোনোকিছু সংযোজন, পরিমার্জন ও সংশোধন করতে হলে করব। আমি মনে করি, একাজ দুই বছরের মধ্যে শেষ হওয়া উচিত। আমরা সেভাবেই কাজ করব। তিনি বলেন, নগরীর পুরানো বাস তুলে দিয়ে প্রায় চার হাজার নতুন বাস নামানো হবে। এজন্য সময় প্রয়োজন। এ কারণেই সময় একটু বেশি লাগবে। আগামী এক বছর তিন মাস পরে সাঈদ খোকনের মেয়রের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে তখন কার্যক্রমের কি হবে-এমন এক প্রশ্নের জবাবে সাঈদ খোকন বলেন, নগরীর উন্নয়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। আমি না থাকলে তখন অন্য কেউ করবে। আমাদের লক্ষ্য যানজটমুক্ত শহর উপহার দেয়া।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর