Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

অবশেষে দুবাইয়ে তামিম-রুবেল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

এশিয়া কাপ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন দুবাইতে। কিন্তু সংযুক্ত আরব আমিরাতের ই-ভিসা হাতে না পাওয়ায় পুরো দলের সঙ্গে যেতে পারেননি তামিম ইকবাল ও রুবেল হোসেন। গতকাল দুপুর পর্যন্ত তাদের হাতে আসেনি ভিসা। তখন জানা গিয়েছিলো, এদিন রাতেই রওয়ানা হওয়ার ‘সম্ভাবনা’ আছে তাদের। বেলা একটার দিকে রুবেল হোসেনকে হাসিমুখে বিসিবি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা গেল। তাঁর ভিসা জটিলতা কেটেছে, সন্ধ্যার ফ্লাইটে রওনাও দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের পেসার। তবে একই কারণে তখনও অনিশ্চয়তার দোলাচলে ছিলেন ওপেনার তামিম। অবশেষে সেটির সমাধান সন্ধ্যায় হয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভিসা অবশেষে পেয়েছেন ড্যাশিং এই মারমুখী ব্যাটসম্যান। গতকাল রাত ১টায় দুবাইয়ের পথে রওনাও দিয়ে দিয়েছেন তিনি, নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঁ-হাতি ওপেনার।
এশিয়া কাপের অনুশীলন ক্যাম্পে আঙুলের চোট পেয়ে প্রস্তুতির বাইরে ছিলেন তামিম। তার পরিকল্পনা ছিল দুইবাইতে গিয়ে পুরোদমে অংশ নেবেন অনুশীলনে। কিন্তু সময়মত সেখানে যেতে না পারায় প্রস্তুতির ঘাটতিতে এই ওপেনার। গত দু’দিন মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ব্যাটিং অনুশীলন করেন তিনি। তার ফাঁকে জানিয়েছিলেন, আজ (গতকাল) রাতের মধ্যে যদি ভিসা পান, তবে চেষ্টা করবেন কাল (আজ) সকালেই রওনা দিতে। আর যদি কাল (আগামীপরশু) সকালে পান, তবে রওনা দেবেন রাতে। কিন্তু কালও যদি ভিসা না পান? তামিমের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ বেড়েছিলো সে কারণেই। তখন জানিয়েছিলেন, ‘আশা করছি এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে খেলতে পারব। আমি এখন বেশি ভাবছি প্র্যাকটিস নিয়ে। অনেক দিন হয়ে গেল ব্যাটিং করি না। জানি না কি অবস্থায় আছি। তাছাড়া আঙুলে কতটা লাগছে, কতটা পারছি, এসব জানতে হলেও তো ব্যাট করা প্রয়োজন। সময়মত যেতে না পারায় বেশ ঝামেলা হয়ে গেল। আজকে রাতে ফিজিওর সঙ্গে কথা বলে কালকে (আজ) মিরপুরেই ব্যাটিং করব কিছুক্ষণ। এছাড়া তো উপায় নেই।’
সেই অনিশ্চয়তা কেটে যাওয়ায় ১৫ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার সঙ্গে এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচটা যথেষ্ট প্রস্তুতি নিয়ে খেলতে না পারলেও আপাতত স্বস্তি তামিমের, হাতে তিন দিন সময় অন্তত পাচ্ছেন দুবাইয়ের কন্ডিশনে মানিয়ে নিতে।
তামিম অবশ্য বুঝে উঠতে পারছিলেন না তার ভিসা নিয়ে কেন জটিলতা তৈরি হয়েছে। এ বছরের শুরুতে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) খেলতে দুবাই গিয়েছিলেন। তখনো তামিমকে একই সমস্যায় পড়তে হয়। চোটের অবস্থা বোঝার প্রয়োজন তো আছেই। ব্যাটিংয়ের তাগিদ অনুভব করছেন তামিম আরেকটি কারণেও। ব্যাট হাতে নিচ্ছেন না যে দুই সপ্তাহের বেশি হলো। যে কোনো সিরিজ বা টুর্নামেন্টের আগে ব্যক্তিগত প্রস্তুতি তার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ। বরাবরই নিজের প্রস্তুতি নিয়ে তিনি খুঁতখুঁতে। এবার সেখানে থেকে যাচ্ছে ঘাটতি। সবশেষ ব্যাটিং করেছেন তামিম গত ২৫ অগাস্ট। ২৭ অগাস্ট থেকে শুরু হয়েছে এশিয়া কাপের দলের প্রস্তুতি। শুরুতে ছিল ফিটনেস ট্রেনিং। স্কিল ট্রেনিং শুরুর আগেই চোট পান আঙুলে। এরপর ব্যক্তিগত জরুরি প্রয়োজনে গিয়েছিলেন সিঙ্গাপুর। সেখানেই স্ক্যান করিয়ে জানতে পারেন আঙুলে হালকা চিড়। দেশে ফেরার পরও তাই শুরু করতে পারেননি ব্যাটিং।
শুধু এই দুই ক্রিকেটারই নন, ভিসা জটিলতায় এখনো যেতে পারেননি এই টুর্নামেন্টে দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন ও প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও। আরব আমিরাতের গরমে খেলে অভ্যস্ত নয় বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। কন্ডিশনের সঙ্গে খেলোয়াড়দের মানিয়ে নিতে তাই এক সপ্তাহ আগেই দল পাঠায় বিসিবি। কিন্তু সেখানে তামিম, রুবেলের থাকতে না পারাটা বিরক্তির মনে করছেন বিসিবি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী, ‘অবশ্যই এটা আমাদের জন্য বিরক্তির ব্যাপার। কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে খেলোয়াড়দের আগেভাগে পাঠাতে চেয়েছি। সেটি নিয়ে এত দোলাচলে সত্যিই অবাক হয়েছি।’
এবার এশিয়া কাপ হওয়ার কথা ছিল ভারতে। কিন্তু পাকিস্তান-ভারতের বৈরি সম্পর্কের কারণে টুর্নামেন্ট সংযুক্ত আরব আমিরাতে সরিয়ে নেয় এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল। ভেন্যু সরলেও আয়োজক হিসেবে নাম আছে ভারতেরও। খেলোয়াড়, কর্মকর্তাদের ভিসা জটিলতায় আয়োজকদের ব্যবস্থাপনাও প্রশ্নের মুখে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর