Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ত্যাগ চাই মর্সিয়া ক্রন্দন চাহিনা

এ. কে. এম. ফজলুর রহমান মুন্শী | প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

আজ পহেলা মহররম। ইসলামী বর্ষ পঞ্জির প্রথম মাসের পথম দিন। মহররম শব্দটি আরবী ভাষার ব্যবহার অনুসারে নাম বাচক বিশেষ্য নয়, বরং গুণবাচক বিশেষণ। ইসলামের আবির্ভাবের পূর্বে প্রাচীন মক্কায় বছরের প্রথম দু’টি মাস ছিল প্রথম সফর ও দ্বিতীয় সফর। প্রাচীন আরবী ভাষায় সাফারাইনি এই দ্বিবাচনিক রূপ দেখে তা’ স্পষ্টতই বুঝা যায়।
প্রাচীন আরবী বছরের প্রথম অর্ধ বছরে তিনটি মাস ছিল এবং এই তিনটি মাসের প্রত্যেকটিতে দু’টি করে মাস ছিল। অর্থাৎ দুই সফর, দুই রবী ও দুই জুমাদা। দুই সফরের প্রথমটি অলঙ্ঘনীয় পবিত্র মাসগুলোর (আশহুরে হুরুম) অন্যতম ছিল বলে এর গুণবাচক আখ্যা দেয়া হয়ে ছিল ‘মহররম’। ধীরে ধীরে তা-ই মাসের নাম হয়ে গেছে। এভাবেই প্রথম সফর মাসটি ‘মহরররম’ মাস নামে এবং অলঙ্ঘনীয় মাসগুলোর প্রথম মাস হিসেবে কালের খাতায়, ইতিহাসের পাতায় স্থান করে নিয়েছে। লক্ষ্য করলে দেখা যায় যে, বছর গণনার দুইটি ধারা সৌর বছর ও চান্দ্র বছর রূপে প্রাচীনকালেও ছিল। প্রাথমিক যুগে বর্ধিত মাস প্রবর্তন করে চান্দ্র বছরকে সৌর বছরের সমপর্যায়ে আনবার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু এই অপচেষ্টা ফলবর্তী হয়নি। তার কারণ, প্রাচীন আরবে জ্যোতির্বিদ্যা সম্বন্ধীয় ব্যাপারে অজ্ঞতা ছিল তুঙ্গে। সে যুগে শীতকালীন অর্ধ বছর ‘মহররম’ মাস দ্বারা-আরম্ভ হত। চন্দ্র বছরের প্রথম ছয় মাসের নাম দেখে তা’ সহজেই অনুধারণ করা যায়। ইহুদীদের বছরের ন্যায় আরবী বছরও শরৎকালে আরম্ভ হত। আল কুরআনে বর্ধিত মাস যুক্ত করবার রীতি চিরতরে নিষিদ্ধ ঘোষণার পর ইসলামী বর্ষপঞ্জির প্রথম দিন ‘পহেলা মহররম’ সমস্ত ঋতুতেই ঘুরে ফিরে আসে। কারণ বারটি চান্দ্রমাস সর্বদাই ৩৫৪ বা ৩৫৫ দিনে হয়। যেমন এখন হচ্ছে। তাই বলে, চান্দ্র বছরকে সৌর বছরের সাথে মিলানোর জন্য বর্ধিত মাস যোগ করার কষ্ট কল্পনা করার আদৌ প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। আরবী ভাষায় মহররম শব্দটি ‘মুহাররাম’ রূপে উচ্চারিত হয়। এই শব্দে ৫টি বর্ণ স্থানলাভ করেছে। যথা : মীম, হা, রা, রা, মীম। মুহাররাম শব্দের বর্ণ সমষ্টির ৫ সংখ্যাটি আল্লাহ পাকের মনোনীত ধর্ম ইসলামের সকল অঙ্গনে মিলে মিশে একাকার হয়ে আছে। যেমন : আরবী ইসলাম শব্দে ৫টি বর্ণ রয়েছে। ইসলাম গ্রহণ করার জন্য ঈমান দরকার। আরবী ঈমান শব্দেও ৫টি বর্ণই আছে। ইসলামের ভিত্তি ৫টি জিনিসের উপর প্রতিষ্ঠিত। ইসলামে ৫ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ। ইসলামে প্রচলিত কালিমার সংখ্যাও ৫টি। এজন্য ইসলামী বর্ষপঞ্জির প্রথম মাস মহররম প্রত্যেক মুমিন মুসলমানের মনের মনিকোঠায় গোড়া থেকেই আপন আসন গেড়ে বসে আছে। ভবিষ্যতেও এর কোন ব্যত্যয় হবে না।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ