Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ১৩ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

নির্বাচনকালীন সরকারে টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী থাকছে না

ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করেছি। নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার আকার ছোট হবে এবং টেকনোক্র্যাট কেউ থাকবে না।’
গতকাল সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ে এক ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, গতবারের নির্বাচনের সময় মন্ত্রিসভার সদস্য ছিল ২৮ জন। এবারও নির্বাচনকালীন সরকারের আকার সেরকমই হবে।
মন্ত্রী বলেন, আগামী নির্বাচনের জন্য অক্টোবরেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী মনোনয়ন শুরু হবে। শরিকদের জন্য ৬৫ থেকে ৭০ আসন ছাড়া হবে। এসময় জোটে জাতীয় পার্টি থাকবে কিনা দলটির সাথে আলোচনা হচ্ছে বলে জানান তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ ছাড়া কোনও ঐক্য জাতীয় ঐক্য নয়। আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে কেউ যদি কোনও ঐক্য করে, ওই ঐক্য হবে জাতীয়তাবাদী সাম্প্রদায়িক ঐক্য।
মির্জা ফখরুলের আন্দোলনের ঘোষণার জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপির আন্দোলন আষাঢ়ে তর্জন গর্জন। পাগলে কিনা বলে ছাগলে কিনা খায়। ১০ বছরে কিছু করতে পারেনি, আগামী ২ মাসে কী আন্দোলন করবেন উনারা? ঘরে ঐক্য নেই। নিজেদের মধ্যে অবিশ্বাস, সন্দেহ। তারা দেশের ঐক্য কিভাবে করবে? সাম্প্রদায়িক শক্তিকে নিয়ে ঐক্য করবে? প্রশ্ন রাখেন কাদের।
তিনি জানান, আগামী ১৩ ও ১৪ সেপ্টেম্বর লঞ্চে বরগুনা এবং পটুয়াখালীতে সাংগঠনিক সফর করবে আওয়ামী লীগ। পরবর্তীতে ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর সড়কপথে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সফর করবেন কেন্দ্রীয় নেতারা।
ট্রেনে উত্তরবঙ্গে সফরের কারণে ট্রেনযাত্রীদের দূর্ভোগ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, উত্তরবঙ্গে সফরের সময় নীলসাগর ট্রেনে ৬৫০ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের মধ্যে আমাদের টিমে ছিল ৭০ জন। গণমাধ্যমের একটি অংশ বলেছে, এতে নাকি যাত্রীদের দূর্ভোগ হয়েছে। ট্রেনটি ৫ ঘণ্টা বিলম্বে গন্তব্যে পৌঁছেছে। এই সংবাদটি সঠিক নয়। কারণ, নীলসাগর ট্রেনটি ঈদের আগে থেকেই ৫ ঘণ্টা বিলম্বে যাতায়াত করছে।
তিনি আরো বলেন, ট্রেনে সফরের সময় আমি যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছেন কোনও ভোগান্তি অনুভব করছেন না। ঈদের আনন্দের মতোই আজ আমরা আমাদের গন্তব্যে যাচ্ছি। কারণ, আপনাদের তো সামনা-সামনি দেখার সুযোগ হয় না। টেলিভিশনে দেখি, আজ এই সুযোগে সামনা-সামনি দেখলাম। আমরা সবাই ঈদের সময়ের মতো আনন্দ করতে করতে বাড়ি যাচ্ছি।
সাংবাদিকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ধরুন আমাদের কারণে ওইদিন ৬৫০ জন যাত্রীকে ভোগান্তিতেই ফেললাম, কিন্তু বিএনপি যে নয়াপল্টন এবং প্রেসক্লাবে সমাবেশ করে লাখ লাখ মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলেছিল সেই সংবাদ তো আমরা কোনও গণমাধ্যমে দেখি নাই।



 

Show all comments
  • সাইফ ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ২:৩৭ এএম says : 0
    নিরপেক্ষ লোকদের রাখলে ভালো হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • অমিত কুমার ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ২:৩৭ এএম says : 0
    খুব ভালো সিদ্ধান্ত
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর