Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১২ বৈশাখ ১৪২৬, ১৮ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

কোচিংয়ের যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চাই

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

ফরিদপুর শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত সারদা সুন্দরী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্রীসংখ্যা প্রায় ১২শ›র বেশি। বর্তমান প্রধান শিক্ষক ঘোষণা করেছেন, জানুয়ারি মাস থেকেই প্রত্যেক ছাত্রীকে বিদ্যালয়ের নিয়মিত ক্লাস শুরু আগে অর্থাৎ সকাল ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের দ্বারা পরিচালিত কোচিং ক্লাসে অবশ্যই যোগ দিতে হবে এবং তা সব ছাত্রীর জন্য বাধ্যতামূলক। এর জন্য প্রতিমাসে কোচিং ফি হিসেবে প্রত্যেককে ছয়শ› টাকা দিতে হবে। যারা এই কোচিং ক্লাসে ভর্তি হবে না তাদের আগামী পরীক্ষায় পাস করার কোনো নিশ্চয়তা থাকবে না অথচ জেএসসি বা এসএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলের কোনো নিশ্চয়তা তারা দিতে পারবেন না। এই দুই ঘণ্টা কোচিং ক্লাসের পর আবার সাড়ে ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নিয়মিত ক্লাসেও উপস্থিত থাকতে হবে। প্রধান শিক্ষক ওই কোচিং ক্লাসকে তাদের ভাষায় ‹সহায়ক ক্লাস› হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি আরও বলেছেন, এ ধরনের কোচিং ক্লাসের ব্যাপারে সরকারেরও কোনো নিষেধ নেই। প্রধান শিক্ষকের এ কথায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী-অভিভাবক সবাই ভীষণভাবে চিন্তিত ও আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জিম্মি করে শিক্ষকরা আমাদের ওপর কোচিংয়ের নামে যে অত্যাচার চালাচ্ছেন, তা থেকে আমরা মুক্তি চাই। আমরা আশা করি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী এ ব্যাপারে জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেবেন।
ফরিদা আক্তার
ফরিদপুর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিঠিপত্র

১৭ এপ্রিল, ২০১৯
১৬ এপ্রিল, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন