Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

ত্যাগ চাই মর্সিয়া ক্রন্দন চাহিনা

এ. কে. এম. ফজলুর রহমান মুন্শী | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

মহান রাব্বুল আলামীন বছর ও সময় গণনার রীতি-পদ্ধতি চিরদিনের জন্য বিধিবদ্ধ করার লক্ষ্যে কুরআনুল কারীমের ৯ নং সূরা তাওবাহ-এর ৩৬ ও ৩৭ নং আয়াতে ঘোষণা করেছেন : আকাশ মন্ডলী ও পৃথিবীর সৃষ্টির দিন হতেই আল্লাহর বিধানে আল্লাহর নিকট মাস গণনায় বারটি মাস রয়েছে। তন্মধ্যে চারটি হলো অলঙ্ঘনীয় নিষিদ্ধ মাস, এটাই সুপ্রতিষ্ঠিত বিধান; সুতরাং এরমধ্যে তোমরা নিজেদের প্রতি জুলুম করো না এবং তোমরা মুশরিকদের সাথে সর্বাত্মকভাবে যুদ্ধ করবে, যেমন তাঁরা তোমাদের বিরুদ্ধে সর্বাত্মকভাবে যুদ্ধ করে থাকে এবং জেনে রেখো, আল্লাহ মোত্তাকীদের সঙ্গে আছেন। এই যে (অলঙ্ঘনীয়) মাসকে পিছিয়ে দেয়া কেবল কুফুরীকে বৃদ্ধি করা মাত্র। যা দ্বারা কাফেরগণকে বিভ্রান্ত করা হয়। তারা উহাকে কোন বছরে বৈধ করে এবং কোন বছরে অবৈধ করে যাতে তারা আল্লাহপাক যেগুলোকে নিষিদ্ধ করেছেন, সেগুলোর গণনা পূর্ণ করতে পারে। অনন্তর আল্লাহপাক যা নিষিদ্ধ করেছেন, তা হালাল করতে পারে। তাদের মন্দ কাজগুলোকে তাদের জন্য শোভনীয় করা হয়েছে; আল্লাহপাক অবশ্যই কাফির সম্প্রদায়কে সৎপথ প্রদর্শন করেন না। (সূরা তাওবাহ : আয়াত নং ৩৬, ৩৭, পারা-১০,রুকু-৫)।
পবিত্র মাসগুলোতে মুসলমানদের কর্তব্য নির্ধারণ করে আল কুরআনের ২নং সূরা বাকারাহ-এর ১৯৪ নং আয়াতে ও ২১৭নং আয়াতে এবং ৫নং সূরা মায়িদাহ-এর ২নং আয়াতে ও ৫৭ নং আয়াতে মহান রাব্বুল আলামীন ইরশাদ করেছেন : পবিত্র মাস পবিত্র মাসের বিনিময়ে, সমস্ত পবিত্র বিধয় যার অবমান না নিষিদ্ধ তার জন্য রয়েছে কিসাসের ব্যবস্থা। সুতরাং যে কেউ তোমাদেরকে আক্রমণ করবে তোমরাও তাকে অনুরূপ আক্রমণ করবে এবং তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং জেনে রেখো আল্লাহ মোক্তাকীদের সঙ্গে আছেন। আরও ইরশাদ হয়েছে : পবিত্র মাসে যুদ্ধ করা সম্পর্কে লোকে আপনাকে জিজ্ঞেস করে, বলুন, এতে যুদ্ধকরা ভীষণ অন্যায়। কিন্তু আল্লাহর পথে বাঁধা দান করা, আল্লাহকে অস্বীকার করা, মসজিদুল হারামে বাঁধা দান করা এবং এর বাসিন্দাকে উহা হতে বের করে দেয়া, আল্লাহর নিকট তদপেক্ষা অধিক অন্যায়, ফিতনা হত্যা অপেক্ষা অধিক অন্যায়, তারা সর্বদা তোমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে থাকবে সে পর্যন্ত তোমাদের ধর্ম হতে ফিরিয়ে না দেয়, যদি তারা সক্ষম হয়। আরও ইরশাদ হয়েছে : তোমরা আল্লাহকে ভয় কর, আল্লাহ শাস্তি দানে কঠোর। আরও ইরশাদ হয়েছে : যদি তোমরা মুমিন হও তবে আল্লাহকেই ভয় কর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর