Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫, ৭ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

মাহমুদউল্লাহর স্বপ্নে ফ্লোরিডা ও লঙ্কাস্মৃতি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

একদিকে গত মার্চে নিদাহাস ট্রফির সুখস্মৃতি অন্যদিকে গত মাসে ফ্লোরিডার অবিস্মরণীয় সিরিজ জয়- এত তাড়াতাড়ি এই দুটো ঘটনা ভুলে যাবার কথা নয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের অংশ হিসেবে গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় শেষ দু’টো টি-২০ ম্যাচ খেলেছিলো বাংলাদেশ। যেখানে দেখা গিয়েছে, প্রবাসী বাংলাদেশিদের অভাবনীয় সমর্থন। আর তাতে কতটা উজ্জীবিত হয়ে দুর্দান্ত খেলেছে বাংলাদেশ দল তা ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। মরুর দেশে কেন একই ছবির পুনরাবৃত্তি হবে না?
বহু জাতিক সংস্কৃতির মিশ্রণ নিয়ে পৃথিবীর বুকে দাঁড়িয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত। জীবিকার প্রয়োজনে দেশটিতে বাংলাদেশি প্রবাসীদের সংখ্যা নেহাত কম নয়। আর তাই এশিয়া কাপে দেশটির দুই শহর দুবাই ও আবুধাবিতে বাংলাদেশের খেলায় তাদের সমর্থন প্রত্যাশা করেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।
গত ৯ সেপ্টেম্বর দুবাইতে পৌঁছায় বাংলাদেশ দল। সেখানকার আইসিসি একাডেমি মাঠে প্রতিদিনই চলছে দলের অনুশীলন। ভিসা জটিলতায় রুবেল হোসেন ও তামিম ইকবাল শুরুতে দলের সঙ্গে যেতে পারেননি। তবে গতকালই তাদের সঙ্গী হয়েছেন তারা। মার্চে কলম্বোয় অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কাকে দুবার হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। ত্রিদেশীয় ঐ সিরিজে লঙ্কানদের বিপক্ষে দুটি ম্যাচই ছিল রোমাঞ্চ আর উত্তেজনায় ভরা। রোমাঞ্চকর একটি ম্যাচের নায়ক আবার মাহমুদউল্লাহ।
ফাইনালে উঠতে হলে ম্যাচটা জিততেই হবে- ১৬ মার্চ দুই দলের সামনে ছিল একই সমীকরণ। শ্রীলঙ্কার দেওয়া ১৬০ রানের লক্ষ্য খেলতে নেমে কত ঘটনা যে ঘটল সেদিন প্রেমাদাসায়। পেন্ডুলামের মতো ঝুলতে থাকা ম্যাচ থমকে দাঁড়াল আম্পায়ারের বিতর্কিত এক সিদ্ধান্তে। যার প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান রেগেমেগে অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ ও রুবেল হোসেনকে চলে আসতে বলেছিলেন মাঠ ছেড়ে। উত্তেজনা পেরিয়ে শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহ-রুবেল ফিরে গিয়েছিলেন। ইসুরু উদানার শেষ ২ বলে দরকার ছিল ৬ রান। শ্বাসরুদ্ধকর মুহূর্তে ছক্কা মেরে মাহমুদউল্লাহ মিলিয়েছিলেন সমীকরণ।
শুধু সেই ম্যাচই নয়, গত মার্চে শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফি টি-টোয়েন্টিতে দুইবার শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এশিয়া কাপ যদিও ভিন্ন সংস্করণে, তবু লঙ্কানদের মুখোমুখি হওয়ার আগে সা¤প্রতিক সেই জয়গুলোকেই প্রেরণা মানছেন মাহমুদউল্লাহ।
আগামী শনিবার দুবাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের লড়াই দিয়েই শুরু হবে এবারের এশিয়া কাপ। মার্চে নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশ দুটি ম্যাচ জিতলেও জানুয়ারিতে বাংলাদেশের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজে অভিজ্ঞতা ছিল ভিন্ন। সেবার প্রথম লড়াইয়ে বাংলাদেশ জিতলেও পরের ম্যাচে হেরেছিল বাংলাদেশ। হেরেছিল ফাইনালেও।
তাই সবশেষ দুটি টি-টোয়েন্টিতে জিতলেও লড়াইটা যে সহজ হবে না, জানেন মাহমুদউল্লাহ। এশিয়া কাপের আগে বাংলাদেশ অনুশীলন করছে দুবাইয়ের আইসিসি ক্রিকেট একাডেমিতে। মঙ্গলবার সেখানেই অনুশীলনের ফাঁকে বললেন, লঙ্কানদের হারাতে খেলতে হবে নিজেদের সেরাটা, ‘কয়েক মাস আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভালো কিছু স্মৃতি আছে আমাদের। তবে শ্রীলঙ্কা খুব ভালো দল। বেশ ভালো ক্রিকেট খেলছে ওরা। ওদেরকে হারাতে আমাদের খেলতে হবে নিজেদের সেরাটা। দেশে আমাদের প্রস্তুতি খুব ভালো হয়েছে। আশা করি আমরা পারব।’
দুবাইয়ে বাংলাদেশ দলকে লড়াই করতে হচ্ছে প্রচণ্ড গরমের সঙ্গে। মাহমুদউল্লাহর আশা, দ্রুতই মানিয়ে নেবে দল, ‘এই মুহূর্তে এখানে বেশ গরম। তবে পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে আমাদের। পরিস্থিতি যেমনই হোক, সেটিকে আলিঙ্গন করে নিতে হবে ইতিবাচক ভাবে।’
একটা জায়গায় অবশ্য ঘাটতি থাকার কথা নয়। সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রবাসী বাংলাদেশী অনেক। মাঠে তাই দর্শক সমর্থনের কোনো কমতি থাকার কারণ নেই। মাহমুদউল্লাহ জানালেন, দলও তাকিয়ে সেদিকে, ‘আশা করি এখানে বেশ ভালো দর্শক সমর্থন পাব আমরা, কারণ অনেক বাংলাদেশী থাকেন এখানে। আশা করি তারা মাঠে আসবেন এবং আমাদের সমর্থন করবেন। আমরাও চাইব তাদের জন্য ভালো কিছু করতে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ