Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯, ০৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

খালেদা জিয়া ছাড়া কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না -চট্টগ্রামে নজরুল ইসলাম খান

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৯:০১ পিএম

সরকার অন্যায়ভাবে বিএনপি নেতাদের বন্দি করে রেখেছে উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দির মুক্তির দাবিতে আরো ইস্পাত কঠিন আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এ সরকার একটি অমানবিক, সরকারের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম থেকেই কঠোর আন্দোলন শুরু হবে। খালেদা জিয়া ছাড়া কোন নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না। তিনি শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে সাবেক হুইপ ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, সরকারকে একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন দিতে বাধ্য করা হবে। জেল, জুলুম আর মামলা দিয়ে সরকার তার শেষ রক্ষা করতে পারবে না। আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা হবে।
হাটহাজারীর লালিয়ার হাট মাদরাসা মাঠে চাকসু ভিপি নাজিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে শোক সভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, ২০ দলীয় জোটের শরিক কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, বরকত উল্লাহ বুলু ও মোহাম্মদ শাহজাহান, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নাল আবেদিন ফারুক, গোলাম আকবর খোন্দকার ও এস এম ফজলুল হক, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, সাবেক এমপি সৈয়দা আসিফা আশরাফি পাপিয়া, বিএনপি নেতা মাহবুবুর রহমান শামীম, ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা, জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, ডা. শাহাদাত হোসেন, মহিলা দলের নেত্রী সুলতানা আহমেদ, বেগম নুরী আরা ছাফা প্রমুখ। এছাড়া সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের কন্যা ব্যারিস্টার সাকিলা ফারজানাসহ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা বিএনপির নেতারা বক্তব্য রাখেন।
কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর (অব.) ইবরাহিম বলেন আগামী দিনে কঠিন সময় আসছে। দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। এজন্য ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। সেলিনা রহমান বলেন এখন আর ঘরে বসে থাকার সময় নয়। ঐক্যবদ্ধ হউন, রাজপথে নামুন। বরকতউল্লাহ ভুলু বলেন, নেত্রী কারাগারে এখন আর বসে থাকার সময় নেই। সংগ্রামের মাধ্যমে কাপনের কাপড় মাথায় বেঁধে আন্দোলন করে নেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, দেশের আইন চলে এক ব্যক্তির কথায়। সেই আইন দিয়ে নেত্রীকে জেল থেকে বের করা যাবে না। আন্দোলন করে জেলের তালা ভেঙ্গে নেত্রীকে বের করতে হবে।
গোলাম আকবর খোন্দকার বলেন, মরহুম সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম যেভাবে রাজপথে থেকে আন্দোলন সংগ্রাম করেছেন সেভাবে আমাদেরকেও রাজপথে নামতে হবে। এস এম ফজলুল হক বলেন, দেশে কোন গণতন্ত্র নেই, গরীব দু:খী মানুষের কোন স্বাধীনতা সেই। রক্ত দিয়ে দেশের গণতন্ত্র রক্ষা করে বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। বিএনপির প্রচার সম্পাাদক শহীদ উদ্দিন এ্যানি বলেন, বৃহত্তর আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে হবে। এজন্য ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া কোন বিকল্প নেই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নজরুল ইসলাম খান

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন