Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯ মাঘ ১৪২৫, ১৫ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

বিশ্বকাপের মহড়া এশিয়া কাপে

শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই শুরু

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

মাশরাফি বিন মুর্তজার দুর্বোধ্য বোলিং, রোহিত শর্মার দুর্দান্ত ব্যাটিং, মোহাম্মদ আমিরের ঝাঁঝালো স্পেল, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুউসের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স ও রশিদ খানের ঘূর্ণির যাদুর সঙ্গে নবাগত হংকং চমক দেখার অপেক্ষায় গোটা ক্রিকেট বিশ্ব। আর মাত্র কয়েক ঘন্টা পরই শুরু হচ্ছে এশিয়ার মহারণ। সংযুক্ত আরব আমিরাতের উত্তপ্ত গরমে ব্যাট-বলের শিখা উড়াবেন ক্রিকেটাররা। এরই মধ্যে আরব দেশটিতে নিজেদের শেষ সময়ের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সময় কাটছে দলগুলোর। এশিয়া কাপ নিয়ে একদম মাতামাতি নেই। ব্যানার, ফেস্টুন কোনও কিছুই চোখে পড়েনি। স্থানীয়দের আগ্রহ থাকার কারণও নেই। যাবতীয় আগ্রহ উপমহাদেশের প্রবাসীদের। প্রিয় দলের খেলা দেখতে অনেকেই মাঠে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এর বাইরে আর মাতামাতির সময় কই!
তবে এশিয়া কাপকে ঘিরে বেশ আগ্রহ আইসিসির। এশিয়া কাপে অংশ নিচ্ছে ছয়টি দল। অন্যদিকে ২০১৯ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নেবে দশ দল। যার পাঁচটিই আছে এই এশিয়া কাপে। শুধু দল না, র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা তারকা ক্রিকেটাররাও খেলছেন এ টুর্নামেন্টে। অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা পাঁচের তিনজনই মাতাবেন এশিয়া কাপ। বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এখনও ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে। দুইয়ে থাকা মোহাম্মদ হাফিজ সুযোগ পাননি দলে। চারে ও পাঁচে থাকা মোহাম্মদ নবী ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুউস আছেন এশিয়ার দৈরাত্বে। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে বোলিংয়ে শীর্ষে ভারতের জসপ্রিত বুমরাহ। ব্যাটিংয়ে বিরাট কোহলি। কিন্তু তাকে বিশ্রাম দিয়েছে বিসিসিআই। তাদের বাদেও র‌্যাঙ্কিংয়ে দাপট দেখানো একাধিক খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণ থাকবে এবারের এশিয়া কাপে। বলার অপেক্ষা রাখে না ব্যাট-বলের উত্তাপ ছড়িয়ে যাবে সবখানেই।
বিশ্বকাপের আগে এশিয়া কাপ সবথেকে বড় টুর্নামেন্ট। এমন মঞ্চে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে নিজেদের ঝালাই করে নিতে চান মাশরাফি বিন মুর্তজা। এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ অধিনায়ক জানান, ‘আইসিসি বিশ্বকাপ এমন একটি টুর্নামেন্ট যেখানে সবাই বেশ উদ্যমের সঙ্গে অংশগ্রহণ করতে চায়। এশিয়া কাপ আমাদেরকে আগামী বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি নিতে অনেক বেশি সহযোগিতা করতে বলে বিশ্বাস করি। কারণ, এশিয়া কাপ থেকেই আগামী বিশ্বকাপ পর্যন্ত আমাদেরকে বেশ কয়েকটি সিরিজে অংশ নিতে হবে। এখানে বড় বড় খেলোয়াড়দের বিপক্ষে খেলতে পারবো।’
নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার বড় সুযোগ পাবে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তানও। এশিয়া কাপে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ রয়েছে তিনে। বাংলাদেশের থেকে এগিয়ে পাকিস্তান ও ভারত। পিছিয়ে আছে শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান ও হংকং। তবে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ঈর্ষণীয়। শেষ তিন আসরের দুটিতেই বাংলাদেশ খেলেছে ফাইনাল। শিরোপার স্বাদ না পেলেও বাংলাদেশের পারফরম্যান্স ছিল দাপুটে। ২০১২ সালে প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। কিন্তু শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে ২ রানে হেরে যায়। এরপর ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপেও ফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ। তবে সেবারও হয়েছে স্বপ্নভঙ্গ। ৭ বল আর ৮ উইকেট হাতে রেখেই ফাইনালে জিতে যায় ভারত। অতীতের এই সুখস্মৃতি এবারও আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে মাশরাফিকে, ‘এশিয়া কাপে সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের দারুণ স্মৃতি রয়েছে। শেষ তিন ইভেন্টে আমরা দুবার ফাইনাল খেলেছি। পাশাপাশি র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী আমরা এশিয়ার তৃতীয় সেরা দল। শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলার আগে এটা আমাদের অনুপ্রাণিত করছে এবং আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে।’
আজ উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশ মাঠে নামছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও আছে বেশ কিছু সুখস্মৃতি। সব মিলিয়ে আরব আমিরাত থেকে বিশ্বকাপের ভালো প্রস্তুতি নেয়ার ফাঁকে সেরা তিনে থাকা দলটি এশিয়া কাপে কতদূর যায় সেটাই এখন দেখার।



 

Show all comments
  • আরমান ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৩:১২ এএম says : 0
    বাংলাদেশ দলের জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ