Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ৩০ আশ্বিন ১৪২৫, ০৪ সফর ১৪৪০ হিজরী

৫ ভারতীয় জুয়াড়ী গ্রেফতার!

স্পোর্টস ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

এশিয়ার পুরুষ ক্রিকেট দলগুলো যখন ব্যস্ত আরব আমিরাতে চলমান এশিয়া কাপে তখন বসে নেই ভারত ও শ্রীলঙ্কার নারী ক্রিকেট দলও। শ্রীলঙ্কায় নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলছে দুই দল। এরই মধ্যে ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে গ্যালারী থেকে সন্দেহভাজন ৫ বাজিকরকে আটক করেছে শ্রীলঙ্কান পুলিশ।
জানা গেছে আটককৃত সবাই ভারতীয় নাগরিক। গত রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় নারী ক্রিকেট দল ও শ্রীলঙ্কান নারী ক্রিকেট দলের মধ্যকার শেষ ম্যাচটি হচ্ছিলো কাটুনায়েকেতে। সে ম্যাচে দর্শক গ্যালারীতে থাকা ৫ ভারতীয় নাগরিককে মাত্রাতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে তাৎক্ষণিকভাবে মাঠ থেকে বের করে দেয়া হয়। পরে বিস্তারিত তদন্তের জন্য তাদেরকে ডেকে নেয় শ্রীলঙ্কান পুলিশ।
শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যাশলে ডি সিলভা নিশ্চিত করেছেন যে খেলা চলাকালীন গ্যালারীতে মাত্রাতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারের কারণেই সন্দেহ ঢুকে আইসিসির এন্টি করাপশন ইউনিটের মনে। সে কারণেই প্রাথমিকভাবে তাদেরকে মৌখিক তিরষ্কার শেষে পুলিশের হাতে তুলে দেয় এন্টি করাপশন ইউনিট।
এসএলসি প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘আমাদের খুব বেশি জানার সুযোগ ছিল না। তবে মাঠে থাকা আমাদের কর্মীরা লক্ষ্য করছিল যে ওই ৫ পাঁচ ব্যক্তি অতিরিক্ত মোবাইল ফোন ব্যবহার করছে। এ কারণে তারা তাদের কাছে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এ ঘটনার জের ধরেই এন্টি করাপশন কর্মকর্তার সন্দেহ হয় তারা ম্যাচ পাতানো চক্রের সদস্য। তাই এন্টি করাপশন কর্মকর্তা ওই পাঁচ ব্যক্তিকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।’
কাটুনায়েকেতে অনুষ্ঠেয় ম্যাচের আগেই তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দু’টি ম্যাচ জিতে সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলেছিল ভারতীয় নারী ক্রিকেট দল। তবু সিরিজের শেষ ম্যাচটিতে প্রায় এক হাজার দর্শকের উপস্থিতি অবাক করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ডকে। ম্যাচে একদম শেষ বলে জয় তুলে নেয় শ্রীলঙ্কা। কিন্তু গ্যালারীর ঘটনা খুব একটা স্বস্তি দিচ্ছে না লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডকে।
সাম্প্রতিক সময়ে বাজিকর সন্দেহে আটকের দ্বিতীয় ঘটনা এটি। এর আগে গত মাসেই শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট টি-টোয়েন্টি লিগের এক ম্যাচ থেকে এমন অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারের কারণে বেশ কয়েকজন বিদেশী নাগরিককে মাঠ থেকে বের করে দিয়েছিল সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর