Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

গোবিন্দগঞ্জে নির্মাণাধীন ভবনের নীচ থেকে নিখোঁজ শিশুর লাশ উদ্ধার

প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা)উপজেলা সংবাদদাতা : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া ৮ বছরের শিশু সাজিনা খাতুনের মৃতদেহ নির্মাণাধীন শালমারা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের নীচে পাওয়া গেছে। রবিবার বিকাল ৪টার দিকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। সাজিনা খাতুন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের মিরাপাড়া গ্রামের মো. সাবু মিয়ার কন্যা। সে মিরাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল।
এরআগে, শনিবার বিকেলে মিরাপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৈশাখ উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখতে যায় সাজিনা। কিন্তু গোলযোগের কারণে সেখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান না হওয়ায় যে যার মতো বাড়ী ফিরলেও সাজিনা খাতুন বাড়ি না ফিরে নিখোঁজ হয় । পরে রাতে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও সাজিনার কোন সন্ধান মেলেনি।
স্থানীয়রা জানান, রবিবার সকালে শালমারা ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্মাণাধীন ভবনের নিচে সাজিনার লাশ পড়ে থাকতে দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে খবর পেয়ে সাজিনার পরিবারের লোকজন এসে তার লাশ বাড়িতে নিয়ে যায়। সাজিনার মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছেও বলেও জানান তারা।
স্থানীয় এলাকাবাসীর ধারণা, নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে গিয়ে সাজিনার মৃত্যু হয়েছে। আর তা না হলে সাজিনাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা।
শালমারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমির হোসেন শামিম তালুকদার লাশ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নব-নির্মিত ভবনের উপর থেকে পড়ে সাজিনার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। সাজিনার লাশ পাওয়ার পর বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে।
গোবিন্দগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইসমাইল হোসেন ঘটনাস্থল থেকে জানান, মেয়েটির মৃত্যু রহস্যজনক। যে জায়গায় লাশ পাওয়া গেছে সেখানে মেয়েটির যাওয়ার কথা না। ছাদ থেকেও পড়তে পাড়ে আবার ধর্ষণের পরেও হত্যা করা হতে পারে। মেয়েটির শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হচ্ছে। তবে কিভাবে সাজিনার মৃত্যু হয়েছে তা উদঘাটনে তদন্ত চালানো হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন