Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ০১ পৌষ ১৪২৫, ৭ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

কওমী সনদের বিল পাস হওয়ায় অভিনন্দন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৬ এএম

কওমী সনদের বিল জাতীয় সংসদে পাশ হওয়ায় হাইয়াতুল উলয়া ও বেফাকসহ বিভিন্ন ইসলামী দল ও উলামায়ে কেরাম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পীকার, শিক্ষামন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট সকলকে অভিনন্দন ও মোকারকবাদ জানিয়েছেন। কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) তাদের দ্বীর্ঘ দিনের আন্দোলনের ফসল কওমী সনদের বিল পাশ হওয়ায় বেফাক গতকাল বাদ আছর বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট থেকে অভিনন্দন মিছিল বের করে সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
আল-হাইআতুল উলয়া : কওমী সনদের মান জাতীয় সংসদে পাশ হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন আল-হাইআতুল উলয়ার চেয়ারম্যান হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী, কো-চেয়ারম্যান ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া সিনিয়র সহ-সভাপতি আল্লামা আশরাফ আলী, বেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া গওহরডাঙ্গা বাংলাদেশ, আঞ্জুমানে ইত্তেহাদুল মাদারিস বাংলাদেশ, আযাদ দ্বীনী এদারায়ে তা‘লীম বাংলাদেশ, তানজীমুল মাদারিসিল কওমিয়া বাংলাদেশ ও জাতীয় দীনী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের সদস্যবৃন্দ। বিবৃতিতে তারা বলেন, এ বিল পাস হওয়ায় এ দেশের উলামায়ে কেরাম, মাদরাসার ছাত্রবৃন্দ এবং ধর্মপ্রাণ জনসাধারণের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ হল। কওমি শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয় শিক্ষাব্যবস্থা হিসাবে স্বীকৃতি পেল। ফলে তারা ইসলামের কাজে এবং দেশ ও জাতির কল্যাণে নিজেদেরকে আরো বেশি নিয়োজিত করতে পারবে।
কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক) : কওমী সনদের মান সংসদে পাশ করে এ মোবারক কাজটি সম্পন্ন করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক) এর নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, এ সিদ্ধান্ত অত্যন্ত আনন্দের ও খুশির বিষয়। এ বিষয়টি চূড়ান্তভাবে পৌছানোর ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বপূর্ন মনযোগ ছিলো সবচেয়ে বেশি। বিবৃতিদাতাগণ হলেন : কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক) এর সভাপিত আল্লামা শাহ আহমাদ সফি, সিনিয়র সহ-সভাপতি আল্লামা আশরাফ আলী, সহ-সভাপতি মাওলানা আনওয়ার শাহ, মাওলানা মুফতী মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবিবুর রহমান, মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, মাওলানা আব্দুল বারী, মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী, মাওলানা নূরুল ইসলাম আদীব, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা আব্দুর রহমান হাফেজ্জী, মধুপরের পীর মাওলানা আব্দুল হামিদ, মাওলানা নূরুল ইসলাম, মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর, মাওলানা সাজেদুর রহমান, মাওলানা সালাহউদ্দিন, মাওলানা ছফিউল্লাহ, মাওলানা মুফতী ফয়জুল্লাহ, মাওলানা মুসলেহ উদ্দীন রাজু, মাওলানা আনাস মাদানী, মহাসচিব মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, যুগ্ন-মহাসচিব মাওলানা মাহফূজুল হক, মুফতী নূরুল আমীনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস : বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল আল্লামা হাবীবুর রহমান ও মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেন, কওমী লাখো লাখো ছাত্র ও আলেমদের দ্বীর্ঘ দিনের প্রাণের দাবী ছিলো কওমী সনদের সরকারি স্বীকৃতি। এ দাবী আদায়ে উপমহাদেশের প্রখ্যাত হাদিস বিশারদ দলের প্রতিষ্ঠাতা আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হক রহ. পাঁচ দিন মুক্তাঙ্গনে অবস্থানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে ছিলেন। বর্তমান সরকার কওমী সনদের স্বীকৃতি জাতীয় সংসদে পাশ করায় শায়খুল হাদীসের কর্মসূচীর দাবী বাস্তবায়ন হলো এবং সরকার নতুন ইতিহাস গড়লো। নেতৃদ্বয় বলেন, কওমী সনদের মান পাশ হওয়ায় কওমী ছাত্র-ছাত্রীদের মেধার মূল্যায়ণ হবে। তারা ইসলাম ও জাতির জন্য বেশি ভূমিকা রাখতে পারবে।
কওমী শিক্ষক কল্যাণ সোসাইটি : কওমী শিক্ষক কল্যাণ সোসাইটির চেয়ারম্যান শায়খুল হাদীস মাওলানা আব্দুস সামাদ বলেন, কওমী সনদের স্বীকৃতি আমাদের জন্য খুশির সংবাদ। আমি আশাবাদী এই স্বীকৃতির ইতিবাচক দিকগুলো আমাদের কওমী শিক্ষার্থীরা ধারণ করবে এবং দেশ ও জাতির কল্যাণে তাদের মেধা ও শ্রম ব্যয় করবে।
ইসলামী ছাত্র মজলিস : বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি আতাউল্লাহ হোসাইনী ও সেক্রেটারী জেনারেল মুহাম্মদ উবায়দুর রহমান বলেন, ছাত্র মজলিসের ১৯৯২ সালের দাবী কওমী সনদের মান জাতীয় সংসদে পাশ হওয়ায় মেধাবী ছাত্ররা সমাজ গঠনে ভূমিকা রাখার সুযোগ পাবে।
বেফাকের শুকরিয়া মিছিল
কওমী মাদরাসার সর্বোচ্চ স্তর দাওরায়ে হাদীস (তাকমীল)-এর সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও এরাবিক)-এর সমমান দিয়ে জাতীয় সংসদে বিল পাশ করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানিয়ে আজ বৃহস্পতিবার বাদ আসর বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইটে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ ও শোকরিয়া মিছিল করেছে বাংলাদেশ কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক)। সমাবেশে বেফাক নেতৃবৃন্দ বলেন, গতকালের দিনটি বাংলাদেশের ইসলামপ্রিয় জনতা বিশেষ করে আলেম-উলামা ও কওমী মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষকদের জন্য একটি ঐতিহাসিক দিন। বর্তমান সরকারের এই সাহসী ভূমিকার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। সেইসাথে জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পিকার, শিক্ষামন্ত্রী, মন্ত্রী পরিষদ সদস্যবর্গ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সামরিক উপদেষ্টা, সামরিক সচিব, সচিব ও সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারিদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন
বেফাকের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও আল হাইয়্যাতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়্যা বাংলাদেশের কো-চেয়ারম্যান আল্লামা আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বেফাকের মহাসচিব মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মহা-পরিচালক মাওলানা যোবায়ের আহমদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি মুফতী ফয়জুল্লাহ, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, মজলিসে আমেলার সদস্য মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী, মাওলানা নুরুল আমীন, মাওলানা মুসলেহউদ্দিন রাজু, মাওলানা আবুল কাশেম, মাওলানা আলতাফ হোসাইন প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর