Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ সফর ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

আঁচড় যখন ভিন্ন ক্যানভাসে

চীনা চিত্রকলা

তা ন জি লু র র হ মা ন তু ষা র | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৭ এএম

৭৯ বছর বয়সী চীনা মানুষটি ৩ হাজারেরও বেশি ডিমের খোসায় অনেকরকম ছবি এঁকেছেন চীনের ঐতিহ্যবাহী এক যাত্রার জন্য। যার নাম পেকিং।
পেকিং নামের যাত্রার একজন সত্যিকার অনুরাগী ফেই ইয়ংকুয়ান নামের এই শিল্পী। চীনের জাতীয় এই সংস্কৃতির প্রতি তার অনুরাগের জায়গা থেকে তিনি এখানে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন নিজের মতো করে। গত ১৩ বছর ধরে তিনি আঁকছেন এই পেকিং যাত্রার মুখোশ। সেটিও ডিমের খোসার ওপর। ৭৯ বছর বয়স হয়ে গেলেও এখনো এই সুক্ষ শিল্পকর্মটি তিনি করে চলেছেন নিখুঁতভাবে। এভাবে তিনি ব্যাপক পরিচিতও পেয়েছেন।
প‚র্ব চীনের জেজিয়াং প্রদেশে জন্মগ্রহণকারী ফেই ইয়ংকুয়ান ছোটবেলা থেকেই ছিলেন পেকিং যাত্রার ভক্ত। ২০০০ সালে চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার পর আবার তাঁর মাথায় চড়ে বসে ছোটবেলার নেশা। প্রায়ই বন্ধুদের নিয়ে বেড়িয়ে পরতেন যাত্রার আসরে। যাত্রা আর থিয়েটারে সময় কাটাতেন গান গেয়ে। এভাবে চলতে চলতে এক সময় তিনি বুঝতে পারেন যে, মুখোশ আঁকার প্রতি তার বিশেষ ভালবাসা ও টান আছে।
পেকিং যাত্রায় ব্যবহৃত মুখোশটিকে চীনা ভাষায় “লিয়ানপু” বলে। লিয়ানপু অর্থ রঙিন অভিনেতা, যার মুখে নানারকম রঙ করা থাকে। আর রঙিন সাজপোশাক নাটকগুলিতে তাদের ভ‚মিকা সনাক্ত এবং বুঝতে সাহায্য করে। চীনের ম‚লধারার সংবাদ মাধ্যমগুলোতে ফেই ইয়াংকুয়ানের খবর প্রচার হবার পরেই তিনি ব্যাপকভাবে পরিচিতি ও সুনাম অর্জন করেন । সে কখনোই তার শিল্পগুলোকে বিক্রি করেননি বরং যারা সত্যিকার অর্থেই ডিমের খোসায় এই চিত্রশিল্পকে পছন্দ করে তাদেরকে উপহার দিয়েছেন।
এখন, ফেই-এর থাকার ঘরটি নিখুঁত চীনা ঐতিহ্যবাহী কারুশিল্প দিয়ে ভরা একটি জাদুঘরে পরিণত হয়েছে। তিনি মনে করেন এই চিত্রকর্গুলো অম‚ল্য। তিনি এখন তাঁর চিত্রকর্মকে শুধু যাত্রার মুখোশেই সীমাবদ্ধ রাখেননি, তিনি এখন ডিসনি ক্লাসিক, চীনা উপন্যাস এমনকি চীনের রাশিচক্রের প্রাণীদের ওপরেও ছবি আঁকছেন।
ফেই ইংকুয়ানের জন্য, এই ছবি আঁকা তার জীবনের অর্থ দিয়েছেন এবং তিনি পেকিং যাত্রাকে চীনা সাংস্কৃতিক গুরুত্বপ‚র্ণ অংশ করে তুলতে সক্ষম হয়েছেন। ফেই সাংবাদিকদের জানান, “আমি আমার ঐতিহ্যগত যাত্রা সংস্কৃতির উন্নয়নের জন্য ডিমের খোসাগুলো আঁকছি। যতদিন আমার স্বাস্থ্যের অবস্থা ঠিক থাকবে ততদিন আমি কাজ চালিয়ে যাব।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ