Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫, ০৬ সফর ১৪৪০ হিজরী

পাবনায় নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ৩ জনের সন্ধানে অভিযান চলছে

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৩:৩৮ পিএম

পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুরে পদ্মা নদীতে স্রোতের টানে ডুবে যাওয়া নৌকার নিখোঁজ ৩ জনকে উদ্ধারের জন্য এখনও অভিযান চলছে। নৌকাডুবির ১৯ ঘন্টা পর্যন্ত নিখোঁজদের সন্ধান পায়নি ডুবরী দল। গত বৃহস্পতিবার বিকাল সাঢ়ে ৫টার দিকে রাজাশাহী থেকে আসা ডুবরী দল পদ্মা নদীতে তল্লাশী শুরু করেন। টানা ৬ ঘন্টাকাল তল্লাশীর পর প্রবল বৃষ্টি ও ঝড় হাওয়া কারণে তল্লাশী কার্যক্রম ব্যহত হয়ে পড়ে। প্রকৃতি শান্ত হয়ে আসলে তারা আবার তল্লাশী শুরু করেন । ডুবরী দল, পাবনার ফায়ার সার্ভিস, স্থানীয় লোকজন ও জেলে নৌকা তল্লাশী চালিয়ে যাচ্ছেন।
পাবনা ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারি পরিচালক এ কে এম সাইফুল ইসলাম জানান, পাবনা ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ও রাজশাহী থেকে আসা একটি ডুবুরী দলের সদস্যরা আজ শুক্রবার সকাল সাতটা থেকে আবার উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রথম উদ্ধার অভিযান শুরু করা হয়। তবে এখন পর্যন্ত কারো সন্ধান মেলেনি। তার মতে, দুইজন শিশুর বেঁচে থাকার সম্ভাবনা ক্ষীণ । তবে অপর ব্যক্তি অন্য কোন পারে উঠেছেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
অপরদিকে, নিখোঁজ ৩ জনের পরিবারে চলছে শোক-কান্না । নদীর তীরে বসে আছেন নিখোঁজদের স্বজনরা। উদ্ধার অভিযান ও নিখোঁজদের খবর জানতে এলাকাবাসী নদী পাড়ে এসেছেন । গতকাল ও আজ এই অভিযান কাযক্রম সরাসরি তদারকি করছেন , পাবনার জেলা প্রশাসক মো: জসিম উদ্দিন ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন। এ ছাড়াও পাবনা পুলিশের দক্ষ টিম কাজ করছেন। পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ এবং সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ওবাইদুল হক ঘটনাস্থলে রয়েছেন
এ সময় জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন বলেছেন, নিখোঁজদের উদ্ধারের সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে। ফায়ার সার্ভিস, মেডিকেল টিম, এ্যাম্বুলেন্স এখানে উপস্থিত রয়েছে। পাবনা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিখোঁজদের পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা দেয়া হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে পাবনা সদর উপজেলার চরতারাপুর ইউনিয়নের দীঘি গোহাইলবাড়ী এলাকায় পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এতে শিশুসহ তিনজন নিখোঁজ হয়। নিখোঁজরা হলেন-সদর উপজেলার দীঘি গোহাইলবাড়ী গ্রামের ইমান সরদারের পুত্র আবুল হাসেম (৩০), ডিটুল সরদারের শিশু পুত্র বিপ্লব (৭) ও কাশেম সরদারের শিশু পুত্র নাইম (৬)।
চরতারাপুর ইউপি চেয়ারম্যান টুটুল খাঁ জানান, একটি মৃত্যুবাষির্কীতে যোগদানের উদ্দেশ্যে ১১ জন যাত্রী দীঘি গোইলবাড়ী থেকে নৌকায় করে অপর পাড়ে ভাদুরডাঙ্গি ঘাটের দিকে যাওয়ার উদ্দেশ্যে পদ্মা নদী পার হচ্ছিল। যাত্রা শুরুর কিছুক্ষনের মধ্যেই প্রবল স্রোতের টানে নৌকাটি উল্টে নদীতে তলিয়ে যায়। এ সময় ৮ জন সাঁতরে তীরে উঠলেও ৩ জন নিখোঁজ রয়েছে। এদের মধ্যে ২ জন শিশু রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ