Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮, ৭ কার্তিক ১৪২৫, ১১ সফর ১৪৪০ হিজরী

এবার দুই বিভাগেই ফেল বাংলাদেশ

এশিয়া কাপ সুপার ফোর : বাংলাদেশ-ভারত, দুবাই

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৯:৪৪ পিএম | আপডেট : ১২:২২ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

গত এশিয়া কাপের দুই ফাইনালিস্ট বাংলাদেশ-ভারত। সেবার বাংলাদেশকে হারিয়ে শিরোপা নিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। এই আসরের সুপার ফোরের ম্যাচে দুবাইয়ে মুখোমুখি হয় ভারত-বাংলাদেশ। মুশফিক-মুস্তাফিজ ফিরলেও হয়নি ভাগ্য বদল। আগের ম্যাচের মতই ব্যাটসম্যানদের দৈন্যদশা, দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ৪৯.১ ওভারেই ১৭৩ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। জবাবে রোহিত শর্মার দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৩ উইকেট হারিয়েই ৩৬.২ ওভারেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় আসরের সবচেয়ে সফল ৬ বারের চ্যাম্পিয়ন ভারত। ধোনিদের জয়টি ৭ উইকেটের। 

টস জিতে আগে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত। বাংলাদেশের ইনিংস শুরু করেন লিটন দাস এবং নাজমুল হোসেন শান্ত। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে ভুবনেশ্বর কুমারকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডিপ-ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে কেদার যাদবের তালুবন্দি হন লিটন (৭)। দলীয় ১৫ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। স্কোরবোর্ডে আর মাত্র ১ রান যোগ হতেই সাজঘরে ফেরেন আরেক ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত। জাসপ্রিত বুমরাহর বলে শিখর ধাওয়ানের হাতে ধরা পড়েন ৭ রান করা শান্ত।

এরপর জুটি গড়েন সাকিব-মুশফিক। ইনিংসের দশম ওভারে বিদায় নেন মাত্রই হাত খুলে রানের চাকা ঘোরাতে থাকা সাকিব। জাদেজার আগের দুই বলে বাউন্ডারি হাঁকানো সাকিব ধরা পড়েন ধাওয়ানের হাতে। তার আগে ১২ বলে তিনটি বাউন্ডারিতে করেন ১৭ রান। পাওয়ার প্লের ১০ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪৪/৩। ১৬তম ওভারে জাদেজার বলে এলবির ফাঁদে পড়েন মোহাম্মদ মিঠুন (৯)। দলীয় ৬০ রানের মাথায় বাংলাদেশ চতুর্থ উইকেট হারায়।

১৮তম ওভারের শেষ বলে বিদায় নেন মুশফিকুর রহিম। জাদেজার বলে যুভেন্দ্র চাহালের তালুবন্দি হওয়ার আগে মুশফিক ৪৫ বলে করেন ২১ রান। দলীয় ৬৫ রানে টপঅর্ডারের পাঁচ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এরপর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ থিতু হয়ে ব্যাট করতে থাকেন। কিন্তু, আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তে ভুবনেশ্বর কুমারের বলে এলবির ফাঁদে পড়েন তিনি। ১০১ রানের মাথায় বাংলাদেশ ষষ্ঠ উইকেট হারায়। রিয়াদ ৫১ বলে তিনটি বাউন্ডারিতে করেন ২৫ রান। স্কোরবোর্ডে আর কোনো রান যোগ না হতেই ফেরেন মোসাদ্দেক হোসেন। জাদেজার বলে উইকেটের পেছনে ধোনির গ্লাভসবন্দি হওয়ার আগে মোসাদ্দেক ৪৩ বলে করেন ১২ রান।

৬৬ রানের জুটি গড়েন মাশরাফি-মিরাজ। ৪৭তম ওভারে ভুবনেশ্বর কুমারকে পর পর দুই বলে ছক্কা হাঁকিয়ে তৃতীয় বলে জাসপ্রিতের হাতে ধরা পড়েন ম্যাশ। দলীয় ১৬৭ রানের মাথায় বাংলাদেশ হারায় অষ্টম উইকেট। বিদায়ের আগে মাশরাফি ৩২ বলে দুই ছক্কায় করেন ২৬ রান। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন মেহেদি হাসান মিরাজ। বুমরাহর বলে ধাওয়ানের তালুবন্দি হওয়ার আগে মিরাজ ৫০ বলে দুই চার আর দুই ছক্কায় করেন ৪২ রান। মোস্তাফিজ ৩ রান করেন।

ভারতের পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ তিনটি আর ভুবনেশ্বর তিনটি উইকেট নেন। স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজা চারটি উইকেট পান।

এর আগে গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই জিতেছে ভারত। প্রথম ম্যাচে হংকংকে উড়িয়ে দিয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষেও জিতেছিল বড় ব্যবধানে। আর নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিলেও দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে বড় ব্যবধানে হেরে যায় বাংলাদেশ।



 

Show all comments
  • Sabbir hosan ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১০:৩৪ এএম says : 0
    আমাদের দেশের নির্বাচক রাই বড় মেন্টাল,,,,,তারা ভাল ভাল সিনিয়র প্লেয়ারকে রেখে,,,নতুন দের দিয়ে ম্যাচ খেলায়,,,,,,তাদের একটু বুঝার ভুল আছে,,,,,,, আর বুজবেই বা কেমনে তারা রাজনীতি নিয়েই সব সময় পরে থাকে,,,,,,,, বাংলাদেশ দলটাকে তারাই নষ্ট করে দিচ্ছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।