Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ সফর ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

ইসরাইলে অধ্যয়নে কোনো সুপারিশ নয় -মার্কিন অধ্যাপক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ২:৪২ পিএম

যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক ইসরাইলে অধ্যয়ন করার জন্য একজন ছাত্রকে সুপারিশ পত্র দিতে অস্বীকার করেছেন। সে সাথে তিনি যেসব ছাত্র-ছাত্রী ইসরাইলে পড়াশোনা করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে ‘একাডেমিক বয়কট’ আরোপ করেছেন। এর ফলশ্রুতিতে মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই অধ্যাপকের ব্যাপক সমালোচনা করেছে। খবর সিবিএস নিউজ।
জন চেহনি-লিপ্পোল্ড নামের ওই অধ্যাপক মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের যুক্তরাষ্ট্রের সংস্কৃতি বিষয়ক বিভাগে কর্তব্যরত আছেন। তিনি তার বিরুদ্ধে আনা ইহুদি বিদ্বেষ অস্বীকার করেছেন।
মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকাশ করা এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘এটি আশাহত হওয়ার মত একটি ব্যাপার যে, একজন অধ্যাপক তার ব্যক্তিগত রাজনৈতিক বিশ্বাসের কারণে আমাদের ছাত্রদেরকে তাদের পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য সমর্থন দিতে অস্বীকার করেছেন।’
প্রসঙ্গত, জন চেহনি-লিপ্পোল্ডের বিরুদ্ধে তার বিভাগের আবিগেইল ইগবার নামক একজন ছাত্রী অভিযোগ এনে বলেন, তিনি যদিও প্রথমে তাকে সুপারিশ পত্র দিতে রাজি হয়েছিলেন কিন্তু পরবর্তীতে তিনি তার জন্য সুপারিশ পত্র লিখতে অস্বীকার করেন।
জন চেহনি-লিপ্পোল্ড বলেন, ‘আপনারা হয়ত জানেন যে, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক অধ্যাপক ইসরাইলের বিরুদ্ধে একাডেমিক বয়কট আরোপ করে রেখেছেন। তারা এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি অকুণ্ঠ সমর্থন জানান।’
তিনি আরো জানান, ‘এই বয়কট সেইসব ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য যারা ইসরাইলে অধ্যয়ন করতে আগ্রহী এবং তাদেরকে কোনো প্রকার সুপারিশ পত্র দেয়া হবে না।’
আমি বয়কট আরোপ করাকে সমর্থন জানাই কারণ আমি ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানাতে ইচ্ছুক।’ আমি আমার বিরুদ্ধে আনিত ইহুদী বিদ্বেষ আমি পুরোপুরি অস্বীকার করছি। ছাত্র-ছাত্রীদের বিরুদ্ধে আমার কোনো খারাপ ইচ্ছা নেই এবং আমি তাদের জন্য অন্য যেকোনো দেশে অধ্যয়নের জন্য সুপারিশ পত্র লিখতে আগ্রহী।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ