Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৫ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত, তবে শান্তির পথও খোলা : পাকিস্তান আর্মি

বর্বরতার কড়া জবাব দেয়া হবে : জে. রাওয়াত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সামরিক উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে। শনিবার ভারতের সামারিক হুমকির পাল্টা হুমকি দিয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বর্বরতার কড়া জবাব দেয়া জরুরি বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। অন্যদিকে ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ করতে পাকিস্তান প্রস্তুত আছে বলে পাল্টা জবাব দিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী।
গত সপ্তাহে জম্মু ও কাশ্মীরে তিন পুলিশকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। তার আগে এক বিএসএফ জওয়ানও নিহত হন যার ছিন্ন মস্তক পাওয়া যায়নি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের সেনাপ্রধান শনিবার ইন্ডিয়া টিভিকে বলেন, ‘আমাদের জওয়ানদের উপর জঙ্গি ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনী যে বর্বরোচিত হামলা চালাচ্ছে, তার বদলা নেয়ার জন্য কড়া ব্যবস্থা জরুরি। ওদের একইরকম জবাব দিতে হবে। তবে ওদের মতো বর্বরোচিত কাজ করা যাবে না। ওদেরও একইরকম যন্ত্রণা ভোগ করতে হবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘পাকিস্তান যখনই সীমান্তে ভারতের বিরুদ্ধে কিছু করেছে, তখনই আমরা ওদের উপর পাল্টা আক্রমণ চালিয়েছি। পাকিস্তানের অনেক ক্ষতি হয়েছে। আমরা ওদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার অনেক ক্ষতি করেছি। তবে কখনও বর্বর আচরণ করিনি। ওরা মে মাসে সংঘর্ষ বিরতির আবেদন জানায়। আমরা সেই আবেদন মেনে নেই। তবে ওরা যদি এ ধরনের আচরণ চালিয়ে যায়, তাহলে আমাদের ব্যবস্থা নিতে হবে।’
ভারতের সেনাপ্রধানের এমন বক্তব্যের পাল্টা জবাব দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধান সামরিক মুখপাত্র ও আন্তঃবাহিনি গণ সংযোগ-এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর। শনিবার একটি বেসরকারী টিভি চ্যানেলকে তিনি বলেন, পাকিস্তান একটি পারমাণবিক শক্তি। পাকিস্তানের শান্তির আগ্রহকে দুর্বলতা বলে ভুল করা উচিত হবে না। তিনি বলেন, কেউ যদি আমাদের ধৈর্যের পরীক্ষা নিতে চায় তাহলে আমরা তার উচিত জবাব দেব যা জাতিকে হতাশ করবে না। তিনি বলেন, ‘আমরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত। কিন্তু পাকিস্তানি জনগণ, প্রতিবেশী ও এ অঞ্চলের স্বার্থে শান্তির পথে হাঁটতে চাই।’
তিনি কাশ্মীর সামান্তে এক বিএসএফ সদস্যদের মস্তক বিচ্ছিন্ন করার ভারতীয়ি অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলেন, পাকিস্তান সেনাবাহিনি একটি পেশাদার বাহিনি। তারা কোনো সৈন্যের সাথে এ ধরনের অপেশাদারী আচরণ করতে পারে না। তিনি বলেন,আমরা সহাবস্থান ও শান্তিতে বিশ্বাসী। কোনো হঠকারিতার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে।
এদিকে জেনারেল বিপিন রাওয়াতের কথার জবাবে পাকিস্তানের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি ভারতের সেনাবাহিনি প্রধানের এটা বোঝা প্রয়োজন যে তিনি বিজেপি নেতা নন। তিনি বলেন, তার মন্তব্য যথাযথ নয়। জেনারেলে রাজনৈতিক হাতিয়ারের মত বক্তব্য দেয়া উচত নয়। তিনি বলেন, পাকিস্তান ভারতের সাথে শান্তি চায়।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক উন্নত করার লক্ষ্যে দু’দেশের পুনরায় আলোচনা শুরুর প্রস্তাব করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে চিঠি পাঠান। এর কয়েক ঘন্টা পর ভারত জানায়, জাতিসংঘ বৈঠকের ফাঁকে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি ও ভারতের পররাষ্টমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু শনিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বৈঠক বাতিলের কথা ঘোষণা করে। তারা জানায়, কাশ্মীরে ৩ পুলিশ হত্যা ও তার আগে এক বিএসএফ সদস্যের হত্যার সাথে পাকিস্তান জড়িত থাকার কারণে এ বৈঠক করা হয়। তারপর শনিবার জেনারেল বিপিন রাওয়াতের এ হুঁশিয়ারি প্রদান ও পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তার হুঁশিয়ারির পাল্টা জবার দেয়া হয়। সূত্র : দি ডন ও এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।



 

Show all comments
  • কাসেম ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৪:০০ এএম says : 0
    এখানে পাকিস্তান উদারতার পরিচয় দিয়েছে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর