Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।

সিরিয়াকে এস-৩০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দিচ্ছে রাশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৮:৪৩ পিএম

সিরিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আরো শক্তিশালী করতে আধুনিক প্রযুক্তির এস-৩০০ ক্ষেপনাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মস্কো। রাশিয়ার বিমান ভূপাতিত করার জন্য ইসরায়েলকে দায়ী করার এক সপ্তাহের মধ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিল মস্কো।
রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু সোমবার এক টেলি বার্তায় জানিয়েছেন, দুই সপ্তাহের মধ্যে সিরিয়ার সামরিক বাহিনীর হাতে এস-৩০০ তুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।
ক্রেমলিন থেকে জানানো হয়েছে, রাশিয়ার সৈন্যদের নিরাপত্তা বাড়ানোর উদ্দেশ্য নিয়েই সিরিয়াকে এস-৩০০ দেয়া হচ্ছে। এখানে তৃতীয় কোন দেশের ক্ষতি করার কোন উদ্দেশ্য নেই।
সের্গেই শোইগু বলেছেন, “সিরিয়ায় আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ দমনে কাজ করা রুশ সেনাদের সুরক্ষায় যথেষ্ট পরিমাণে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আশা করি, যেসব নতুন পদক্ষেপ আমরা নিয়েছি তাতে গরম মাথাগুলো ঠাণ্ডা হবে এবং ভবিষ্যতে এমন ঘটনা ঘটানোর সাহস পাবে না।”
গত ১৭ সেপ্টেম্বর সিরিয়ায় রুশ বিমান ভূপাতিত হয়ে ১৫ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় ইসরায়েলকে দায়ী করেছে মস্কো। যদিও ইসরায়েল এই দাবী প্রত্যাখান করে সিরিয়ার ওপর দায় চাপিয়েছে।
রাশিয়ার সামরিক বাহিনী জানিয়েছিল, ঘাঁটিতে ফেরার সময় আইএল-২০ বিমানটি সিরিয়ার ভূমধ্যসাগর উপকূল থেকে ৩৫ কি.মি. দূরে বিদ্ধস্ত হয়। রাশিয়ার তাস নিউজ উল্লেখ করেছিল, চারটি ইসরায়েলি এফ-১৬ বিমান সিরিয়ার লাটাকিয়া প্রদেশে হামলা চালাবার সময় রুশ বিমানটি নিখোঁজ হয়ে যায়।
সিরিয়াকে এস-৩০০ দেওয়ার পাশাপাশি মস্কো রাডার সিগনাল জ্যামার বসাবারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যাতে ভূমধ্যসাগরের দিক থেকে কোনও যুদ্ধ বিমান হামলা চালাতে না পারে। টাইমস অব ইসরায়েলের ভাষ্য, এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা দেওয়ার বিষয়ে সিরিয়ার সঙ্গে ২০১০ সালেই সমঝোতা হয়েছিল রাশিয়ার। কিন্তু ইসরায়েলি অনুরোধের প্রেক্ষিতে তা স্থগিত করে রাখা হয়েছিল। সিরিয়ায় রাশিয়ার নিজের এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা রয়েছে। তবে এবার সিরিয়ার হাতেও সেটি তুলে দিতে যাচ্ছে রাশিয়া। সূত্রঃ আল-জাজিরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ