Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৫ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

রক্তক্ষয়ী ও অভাবনীয় প্রতিশোধের হুঁশিয়ারি

প্রতিশোধের হামলায় ইরানকে সহযোগিতা করবে রাশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে বন্দুকধারীদের হামলার ঘটনায় দেশটির পাশে দাঁড়িয়েছে রাশিয়া। এ ব্যাপারে ‘কড়া জবাব’ দিয়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, ইরানে সামরিক বাহিনীর ওপর দুঃসাহসিক সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে একটি অবিচল যুদ্ধ প্রয়োজন। আর এর জন্য তেহরানকে রাশিয়া আরও সহযোগিতা করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। এর আগে শনিবার ইরানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের শহর আহভাজে সামরিক কুচকাওয়াজ লক্ষ্য করে গুলি শুরু করেন বন্দুকধারীরা। এ ঘটনায় হামলাকারী চারজনসহ ২৯ জন নিহত এবং অন্তত ৭০ জন আহত হন। তাতে ইরানের প্রেসিডেন্ট রুহানিকে সমবেদনাও জানিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন। এদিকে, এ ঘটনায় চরম প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গিকার করেছে দেশটির রেভল্যুশনারি গার্ড। অপরদিকে, হামলায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলের জড়িত থাকার অভিযোগ করে দেশ দুটির বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী ও অভাবনীয় প্রতিশোধ নেয়ার হুঁশিয়ারির কথা জানিয়েছে ইরান। রবিবার ইরানের সেনাবাহিনীর উপ-প্রধান এই হুমকি দিয়েছেন। এক বিবৃতিতে সেনাবাহিনীও প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকারের কথা জানিয়েছে। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে সেনাবাহিনীর উপ-প্রধান হোসেইন সালামি বলেন, আপনারা আমাদের প্রতিশোধ নেওয়া অতীতে দেখেছেন। আপনারা মনে রাখুন, আমাদের প্রতিশোধ হবে রক্তক্ষয়ী ও অভাবনীয়। যা করেছেন সেটার জন্য আপনাদের অনুশোচনায় পড়তে হবে। দেশটির গোয়েন্দা প্রধান মাহমুদ আলাভি জানান, হামলায় জড়িত সন্দেহে বেশ কয়েক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার পৃথক এক বিবৃতিতে ইরানের সেনাবাহিনীও প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছে। রয়টার্স, পার্সটুডে।

 



 

Show all comments
  • Billal Hosen ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৯:৫৫ এএম says : 0
    আল্লাহ বলেন, “এরই ওছিয়ত করেছে ইব্রাহীম তার সন্তানদের এবং ইয়াকুবও যে, হে আমার সন্তানগণ, নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের জন্য এ ধর্মকে মনোনীত করেছেন। কাজেই তোমরা মুসলমান না হয়ে কখনও মৃত্যুবরণ করো না।” (সুরাঃ২, আয়াতঃ১৩২)আল্লাহ বলেন, “নিঃসন্দেহে আল্লাহর নিকট গ্রহণযোগ্য দ্বীন একমাত্র ইসলাম। এবং যাদের প্রতি কিতাব দেয়া হয়েছে তাদের নিকট প্রকৃত জ্ঞান আসার পরও ওরা মতবিরোধে লিপ্ত হয়েছে, শুধুমাত্র পরস্পর বিদ্বেষবশতঃ, যারা আল্লাহর নিদর্শনসমূহের প্রতি কুফরী করে তাদের জানা উচিত যে, নিশ্চিতরূপে আল্লাহ হিসাব গ্রহণে অত্যন্ত দ্রুত।” (সুরাঃ৩, আয়াতঃ১৯)আল্লাহ বলেন, “কেয়ামত অবশ্যই আসবে, আমি তা গোপন রাখতে চাই; যাতে প্রত্যেকেই তার কর্মানুযায়ী ফল লাভ করে।” (সুরাঃ২০, আয়াতঃ১৫)আল্লাহ বলেন, “অতঃপর কেউ অণু পরিমাণ সৎকর্ম করলে তা দেখতে পাবে, এবং কেউ অণু পরিমাণ অসৎকর্ম করলে তাও দেখতে পাবে।” (সুরাঃ৯৯, আয়াতঃ৭-৮)
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর