Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫ পৌষ ১৪২৫, ১১ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

রদবদলের খেসারত দিলো বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

সামনে লম্বা ঠাসা সময়সূচি। অপেক্ষাকৃত খর্বশক্তির জিরোনার বিপক্ষে তাই নিয়মিত একাদশের বেশ কয়েক জনকে বসিয়ে নতুনদের সুযোগ দিয়েছিলেন আর্নেস্তো ভালভার্দে। তাছাড়া খেলাটাও ছিল নিজেদের মাঠে। কিন্তু ভালভার্দের পরিকল্পনাটা ঠিক কাজে লাগল না। উল্টো মৌসুমে প্রথমবারের মত পয়েন্ট হারিয়েছে তার দল বার্সেলোনা (২-২)। অবশ্য তাতে একজন কম নিয়ে খেলারও দায় আছে।
কাতালান দলটির জন্য পরিবর্তন মানেই যেন ভোগান্তি। এমনটা না করলেও আবার শুনতে হয় কঠিন সমালোচনা। ঠিক যেমনটা সইতে হয়েছিল গেল মৌসুমে রোমার কাছে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেয়ার পর। সব ধরণের টুর্নামেন্টে টানা একই একাদশ খেলানোর জন্য তখন কম সমালোচনা সইতে হয়নি ভালভার্দেকে। গত মঙ্গোলবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসভি আইন্দোভেনের বিপক্ষে খেলেছে দল। লা লিগায় বুধবার আবার লেগানেস ভ্রমণ করতে হবে। সবকিছু বিবেচনা করে প্রধাণ খেলোয়াড়দের তরতাজা রাখতে চেয়েছিলেন ভালভার্দে। সার্জিও রবের্তো ও স্যামুয়েল উমতিতির পরিবর্তে তাই খেলানো হয় ক্লেমেন্ত ল্যাংলেট ও নেলসন সেমেদোকে। মাঝমাঠের কাণ্ডারি ইভান রাকিটিচ ও পিলিপ কুতিনহোকে বেঞ্চে বসিয়ে নামানো হয় আর্থার ও আর্তুরো ভিদালকে। খাতা কলম বলছিল ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলার এটাই উপযুক্ত সময় এবং সেটা কাতালান ডার্বি হলেও। গত মৌসুমে এই জিরোনাকেই তো ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল বার্সা।
২০১৬ সালেও লুইস এনরিকের বার্সা একই রকম ধাক্কা খায় আরেক মিনোজ আলাভেসের কাছে। সেদিন মেসি-সুয়ারেজকে বেঞ্চে বসিয়ে রাখার খেসারত স্বরুপ ন্যু ক্যাম্পে ২-১ গোলে হারতে হয়েছিল বার্সাকে। পরে মেসি-সুয়ারেজ নেমেও কাজ হয়নি। এবার অবশ্য মেসি-সুয়ারেজকে বসিয়ে রাখার অভিলাষ দেখাননি ভালভার্দে।
তবে মাঝমাঠে বিশেষ কিছু করে দেখাতে পারেননি আর্থার ও তুরান। যদিও তুরানের পাস ধরেই মেসির করা গোলে ম্যাচের ১৯ মিনিটে এগিয়েও যায় বার্সা। ডান প্রান্তে সেমেদোকেও যথেষ্ঠ আত্মবিশ্বাসী মনে হয়নি, যেখানে রবের্তো হলেন প্রথম পছন্দ। সেটাও হয়ত বড় কোন প্রভাব ফেলত না, যদি না ল্যাংলেট লাল কার্ড দেখতেন। ম্যাচের গতিপথ পাল্টে দেয় মূলত এই লাল কার্ডই।
আসছে অক্টোবরের ৩ তারিখে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টটেনহামের বিপক্ষে কঠিন ম্যাচ। যে ম্যাচে খেলতে পারবেন না উমতিতি। এই কারণেই হয়ত ল্যাংলেটকে বাজিয়ে দেখতে চাইছিলেন ভালভার্দে। কিন্তু ফরাসি ২১ বছর বয়সী ডিফেন্ডার মাঠে থাকতে পারেন মাত্র ৩৫ মিনিট। ভিডিও রেফারির সহায়তা নিয়ে তাকে লাল কার্ড দেখান মাঠের রেফারি গিল মানজানো। ইচ্ছাকৃতভাবেই পেরে পন্সের মাথায় কনুই দিয়ে আঘাত করেন ল্যাংলেট।
এর পুরো সুবিধা নিয়ে বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে সমতায় ফেরে জিরোনা। বিরতির পর নামানো হয় উমতিতিকে। কিন্তু ৫১তম ক্রিশ্চিয়ান স্তুয়ানিকে থামাতে পারেননি। নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোল করে সফরকারী দলকে উল্টো এগিয়ে নেন স্তুয়ানি। চিন্তিত ভালভার্দে আর দেরি করেননি। দ্রুতই আর্থার ও তুরানকে তুলে নিয়ে কুতিনহো ও রাকিটিচকে নামান। খেলায় তাতে গতিও ফিরে আসে। পিকের হেডে সমতায়ও ফেরে বার্সা। কিন্তু এরপর অর্ধ ঘণ্টা ধরে আক্রমণের বান বইয়ে দিয়েও জয়সূচক গোলের দেখা পায়নি বার্সা। টানা চার ম্যাচ জয়ের পর তাই পয়েন্ট খোঁয়াতেই হয়েছে চ্যাম্পিয়নদের।
৫ ম্যাচ শেষে রিয়ালেরও পয়েন্ট ১৩। কিন্তু গোল ব্যবধানে এগিয়ে শীর্ষে বার্সা। সমান ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আলাভেস। এরপরে থাকা সেল্টা ভিগো, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ও জিরোনার সংগ্রহ ৮ করে



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর