Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বাংলাদেশের পোশাক কারখানা সবচেয়ে নিরাপদ

বিজিএমইএ’র বিদায়ী সংবর্ধনায় বার্নিকাট

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

শ্রমিকের অধিকার নিশ্চিতই বাংলাদেশের পোশাক খাতের সবচেয়ে বড় বাধা জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেছেন, পোশাক শিল্পে শ্রম আইন বাস্তবায়ন না হলে বাংলাদেশের সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ার ঝুঁকিতে পড়বে। বিদেশি ক্রেতাদের অন্যদিকে ঝুঁকে পড়ার হুমকিও বাড়বে।
গতকাল রাজধানীর বিজিএমইএ ভবনে আয়োজিত এক বিদায়ী সংবর্ধনায় তিনি এ কথা বলেন। পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানসহ এতে সংগঠনের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
মার্শা বার্নিকাট বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের কারখানা সংস্কারের পর সবচেয়ে বড় বাধা শ্রম অধিকার নিশ্চিত করা। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এ বিষয়ের অগ্রগতি শ্লথ হয়ে গেছে। ক্রেতারা পণ্য ক্রয়ের বিষয়ে শ্রম অধিকারের ইস্যুটি বেশী বিবেচনায় নিচ্ছে। এজন্য শ্রম অধিকারের বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তি না করলে বাংলাদেশের সুনাম নষ্ট হবে, বিদেশী ক্রেতাদের অন্যদিকে ঝুঁকে পড়ার হুমকিও বাড়বে।
বার্নিকাট বলেন, আমি বার বার জোর দিয়ে বলছি, আন্তর্জাতিক শ্রম নীতিগুলো মেনে চলা শুধু সঠিক কাজই নয়, এটাই বুদ্ধিমানের কাজ। আমি আপনাদের যতো দ্রুত সম্ভব আইনগত প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনতে উৎসাহিত করতে চাই। বিষয়টিকে দীর্ঘায়িত করলে কোনো লাভ হবে না। আইনকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার পাশাপাশি কার্যকর করলে বিদেশের বাজারে বাংলাদেশের প্রতিযোগিতা বাড়বে। এটি বিশ্ব বাজারে তৈরী পোশাকের অংশ বিস্তৃত করতেও সহায়ক হবে বলে জানান রাষ্ট্রদূত।
বাংলাদেশের পোশাক কারখানা সংস্কারে যে বিনিয়োগ হয়েছে সে বিষয়ে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত বলেন, এই বিনিয়োগের সুফল আপনারা পাবেন, যদি আত্মতৃপ্তিতে না ভোগেন। কারণ সামনের দিনে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে, জাতীয় কর্ম পরিকল্পনার আওতায় কারখানাগুলোর সংস্কার কাজ শেষ করা ও সংস্কারে অর্জিত অগ্রগতি বজায় রাখা।
মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে জিএসপি সুবিধা পুর্নবহাল রাখার আহবান জানান বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। স্বল্পন্নোত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হওয়া পর্যন্ত মার্শা বার্নিকাট সর্বাত্মক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলেও আশা করেন সিদ্দিকুর।
বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, মার্শা বার্নিকাট বাংলাদেশ ও দেশের পোশাক খাতের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বন্ধু। ২০১৪ সালের শেষার্ধে তিনি এমন সময় এসেছিলেন যখন রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর শিল্পটি হুমকির মুখে পড়ে। পোশাক শিল্পের সেই সংগ্রামমূখর সময়ে তিনি শিল্পের রুপান্তর প্রক্রিয়ায় সব ধরণের সহযোগীতা দিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ