Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

ময়মনসিংহে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুদান আবেদনে অনিয়ম

ময়মনসিংহ ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

ময়মনসিংহে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের এককালীন অনুদান প্রদানে এনজিও সংস্থার আবেদন গ্রহনে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের হলে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ এবং স্থানীয় এনজিও মহলে তোলপাড় শুরু হয়েছে।
জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নিবন্ধন কর্তৃপক্ষের অনুমোদ ছাড়াই ময়মনসিংহ জেলার বাইরের বেশ কিছু নামসর্বস্ব এনজিও ময়মনসিংহের ঠিকানা ব্যবহার করে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের এককালীন অনুদানের জন্য আবেদন করছে। অথচ ওই প্রতিষ্ঠানগুলো কখনোই জেলা প্রশাসনের এনজিও সমন্বয় সভায় উপস্থিত থাকে না। এবং তাদের কার্যক্রমের কোন প্রতিবেদন জেলা এনজিও সংস্থার সেলে নেই। তবু জেলার জন্য বরাদ্ধকৃত অনুদানের টাকা বাইরের জেলার নামসর্বস্ব এনজিওগুলোকে দেয়ার পায়তারা করছে একটি সিন্ডিকেট। ফলে স্ব স্ব জেলায় কর্মরত এনজিওগুলো সরকারী অনুদান থেকে বঞ্চিত হবার আশঙ্কা রয়েছে। একই সাথে নিবন্ধন কর্তৃপক্ষের অনুমোদ ছাড়াই সরকারী অনুদান গ্রহণ হলে এনজিও সংস্থা এবং প্রশাসনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে বলে দাবি করেন ওই অভিযোগ সূত্রটি।
একাধিক এনজির সংস্থার অভিযোগ, ময়মনসিংহ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. আঃ রউফ স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের নেতা। ফলে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে তিনি অনুদানের আবেদন গ্রহণে মন্ত্রণালয়ের নীতিমালা না মেনেই অফিস সুপার নূরুল হকের মাধ্যমে প্রতি আবেদনে পাঁচ হাজার টাকা গ্রহণ করছে। এ টাকা সংগ্রহে ময়মনসিংহের বাইরের জেলার বেশ কয়েকটি এনজিও সংস্থার গুটি কয়েক কর্তা ব্যক্তি সিন্ডিকেট হিসেবে কাজ করছেন বলেও অভিযোগ তাদের।
সূত্রটি আরো জানায়, ইতিমধ্যে ময়মনসিংহ পরিবার পরিকল্পনার অফিস সুপার নূরুল হকের যোগসাজসে ওই সিন্ডিকেটের সদস্যরা জেলার বাইরের বিভিন্ন এনজিও সংস্থার সনদ এবং অন্যান্য কাগজপত্রের ফটোকপি সংগ্রহ করে ভূয়া প্রকল্প তৈরীর মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের অনুদান গ্রহণের জন্য প্রস্তাব প্রেরণ করেছে। এ নিয়ে স্থানীয় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র এনজিও এবং বেসরকারী সেচ্ছাসেবী সংস্থার বেশ কয়েকজন কর্তা ব্যক্তি পরিবার পরিকল্পনার বিভাগীয় পরিচালক ডা. আঃ আউয়ালের সাথে দেখা করে ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।
এবিষয়ে ময়মনসিংহ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. আঃ রউফ বলেন, এগুলো ভুল তথ্য। টাকা নিয়ে কোন আবেদন জমা নেয়া হয় না। আমরা মন্ত্রণালয়ের শর্ত মেনে প্রত্যয়ন-নিবন্ধন দেখেই কাজ করছি। তবে এসব বিষয়ে জানতে চাইলে ময়মনসিংহ পরিবার পরিকল্পনার বিভাগীয় পরিচালক ডা. আঃ আউয়াল বলেন, আমি মিটিংয়ে আছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অনুদান


আরও
আরও পড়ুন