Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

আরাধনার মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তার সান্নিধ্য পাওয়া যায়

-পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান

সুনামগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেছেন, প্রতিটি ধর্মের মানুষের মাঝে মত ও পথের পার্থক্য থাকতেই পারে। কিন্তু সবার উপরে মানুষ সত্য তার ওপরে নাই। তিনি বলেন, সৃষ্টিকর্তা একজন, কিন্তু আমরা মানবজাতি সৃষ্টিকর্তার আরাধনা, অনুকম্পা পাওয়ার জন্য কেউ ভগবান, ঈশ্বর কিংবা আল্লাহ হিসেবে ডাকি তার সান্নিধ্য লাভের আশায়।

তিনি আরো বলেন, আমাদের সংবিধানে উল্লেখ আছে একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ হবে যেখানে প্রতিটি ধর্মের মানুষ নিজ নিজ অবস্থানে থেকে নিজনিজ ধর্মের আচার-অনুষ্ঠান অত্যন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে পালন করবেন। তিনি সুনামগঞ্জকে একটি সম্প্রীতির শহর উল্লেখ করে আরো বলেন, এই জেলার প্রতিটি ধর্মের মানুষের মাঝে যে সম্প্রীতি সৌহার্দ্যতা ও মিলবন্ধন রয়েছে তা ইতিহাসে অনুকরণীয় অনুসরণীয় হয়ে থাকবে। জেলাবাসীর মাঝে এই সম্প্রীতির বন্ধন বজায় থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। গতকাল সকাল ১০টায় বিবেকানন্দ শিক্ষা ও সংস্কৃতি পরিষদ সুনামগঞ্জের আয়োজনে শহরের ষোলঘরস্থ রামকৃষ্ণ আশ্রমে শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সুনামগঞ্জ রামকৃষ্ণ পরিচালনা কমিটির সভাপতি প্রফেসর পরিমল কান্তি দের সভাপতিত্বে ও জেলা বিবেকানন্দ শিক্ষা ও সংস্কৃতি পরিষদের সহ-সভাপতি কার্ত্তিক চন্দ্র রায়ের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন ডা. আশুতোষ দাস, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেদায়েত উল্ল্যাহ, সুনামগঞ্জ রামকৃষ্ণ আশ্রমের মহারাজ শ্রীমৎ স্বামী হৃদয়ানন্দজী, সদর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন, পুলিশ ফাড়ির ওসি নির্মল দেব ও জেলা রামকৃষ্ণ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বাবু যোগেশ্বর দাস প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পুলিশ সুপার

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন