Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৬, ১৪ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

জনপ্রিয় হচ্ছে বিকাশে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

গ্রাহকের হাতের মুঠোয় চলে চলে এসেছে মোবাইল ব্যবহার করে পরিষেবার বিল পরিশোধ। প্রতিদিনই জনপ্রিয় হচ্ছে এই সেবা। স্বাস্থ্য, কৃষি বা অন্যান্য জরুরী পরামর্শের মত বিভিন্ন ধরনের পরিষেবা সংক্রান্ত বিল পরিশাধে সহজ করতে অনলাইন বা মোবাইলের মাধ্যমে পরিশোধ করার ব্যবস্থা চালু হয়েছে বেশ কিছু আগে। এ ধরনের সেবায় সর্বশেষ সংযোজন বিকাশের মাধ্যমে দেশব্যাপ পল্লী বিদ্যুতের বিল প্রদান সেবা। অল্প সময়ের ব্যবধানে বিকাশের মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুৎ বিল প্রদানের হার বেড়েছে। ঝামেলা এড়িয়ে, লাইনে না দাড়িয়ে, কোন ব্যাংক বা পল্লী বিদ্যুতের অফিসে না গিয়ে, যে কোন জায়গা থেকে যে কোন সময় বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের সুবিধার কারণেই সারাদেশের পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকরা বিকাশের মাধ্যমে বিল পরিশোধে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। টেলিটকের সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে প্রথমবারের মত এমএফএস প্রতিষ্ঠান হিসেবে এ সেবা দিচ্ছে বিকাশ।
বিকাশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানানা, এবছরের জুন মাসে সেবা চালু করার পর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৭ লাখ পল্লী বিদ্যুতের বিল বিকাশের মাধ্যমে দেয়া হয়েছে এবং প্রতিমাসে বিল পরিশোধের হার বাড়ছে। বিকাশ অন্যান্য সেবার সাথে এ বছরই ‘পে বিল’ সেবা যুক্ত করে। যা ব্যবহার করে পল্লী বিদ্যুতের বিলের পাশাপাশি নেসকো গ্রাহকগণ এবং ডেসকোর স্মার্ট মিটারের গ্রাহকগণ বিল পরিশোধ করতে পারেন। এছাড়া ইউএসএসডি চ্যানেল ব্যবহার করে বিকাশের মাধ্যমে বিল পরিশোধ করতে পারে গ্রাহক। বিল কপিতে উল্লেখিত এসএমএস একাউন্ট নম্বর ব্যবহার করে বিল পরিশোধ করতে হয়। গ্রাহক বিলের পরিমানও বিকাশের মাধ্যমে চেক করে নিতে পারেন। একজন গ্রাহক এক মাসে সর্বোচ্চ দুই বার পল্লী বিদ্যুতের বিল পরিশোধের সুযোগ পান। যার বিকাশ একাউন্ট তিনি চাইলে অন্য কাউকে বেনিফিশিয়ারি হিসেবে যুক্ত করে তার বিলও পরিশোধ করে দিতে পারেন। বিকাশের চিফ কর্মাশিয়াল অফিসার মিজানুর রশীদ বলেন, এই সেবা চালু হওয়ায় গ্রাহক সহজে ও সাচ্ছন্দ্যে তাদের ঘরে বসেই বিদ্যুৎ বিল দিতে পারছে। বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য তাদের আর দূরে কোথাও যেতে হচ্ছে না। ফলে গ্রাহকের সময় এবং খরচ সাশ্রয় হচ্ছে।
যশোরের আইনুন নাহারের স্বামী দুবাই প্রবাসী। বাচ্চাদের নিয়ে প্রতিমাসে বিল দিতে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে যেতে হত। যেতে আসতে আবার খরচ এবং সময় নষ্ট হতে। বাচ্চা নিয়ে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাড়িয়ে বিল দেয়া আমার জন্য যুদ্ধে যাওয়ার মত ছিল। অথচ এখন ঘরে বসেই সুবিধাজনক সময়ে নিজের মোবাইলে বিকাশ একাউন্ট দিয়ে নিশ্চিন্তে ও নিরাপদে বিল দিতে পারছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিকাশ


আরও
আরও পড়ুন