Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০১৯, ০৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

শিল্পায়নে খুলবে কর্মসংস্থান

চিটাগাং চেম্বারে মতবিনিময় সভায় বক্তারা

চট্টগ্রাম ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৩ এএম

দেশে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও অগ্রগতির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বিনিয়োগ-শিল্পায়ন অপরিহার্য। শিল্পায়নের মাধ্যমেই খুলবে কর্মসংস্থানের পথ। এক্ষেত্রে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রয়োজনে কারিগরি দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা অত্যন্ত প্রয়োজন। বর্তমান বিশ্বে প্রতিযোগিতা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। ভিয়েতনাম, কোরিয়া, চীন এসব দেশের সাথে পাল্লা দিতে হলে সক্ষমতা অর্জন করতে হবে।
গতকাল (সোমবার) চট্টগ্রামের মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে এক্সপোর্ট কম্পিটিটিভনেস ফর জব (ইসি-ফোরজে) প্রকল্পের আওতায় প্রস্তাবিত টেকনোলজি সেন্টার স্থাপনের লক্ষ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বিশ্ব ব্যাংক এবং চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় আলোচকগণ একথা বলেন।
সভায় জানানো হয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে ৯শ’ ৪১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬ বছরে উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। সেখানে প্রায় ৮শ’ কোটি টাকা বিশ্ব ব্যাংকের পক্ষ থেকে সহায়তা করা হবে। বাদবাকি অর্থায়ন করবে সরকার।
চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডিটিও (অতিরিক্ত সচিব) ও প্রকল্প পরিচালক (ইসি-ফোরজে) মোঃ ওবায়দুল আজম, চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ ও ওমর হাজ্জাজ, সাবেক পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, বিশ্ব ব্যাংকের প্রাইভেট খাত বিশেষজ্ঞ হোসনা ফেরদৌস সুমি, বেজা’র ডেপুটি ম্যানেজার মোঃ মিজানুর রহমান, বিশ্ব ব্যাংকের কনসালটেন্ট মৃনাল কান্তি সরকার, প্রকল্প ম্যানেজার মোঃ লৎফুর রহমান, ইপিবির পরিচালক কংকন চাকমা, বিসিকের প্রমোশন কর্মকর্তা তানিজা জাহান, প্রান্তিক গ্রæপের এমডি ইঞ্জিনিয়ার গোলাম সরওয়ার প্রমুখ। এতে বিভিন্ন শিল্প-বিনিয়োগকারী এবং ব্যবসা-বাণিজ্য খাতের উদ্যোক্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের রফতানির প্রায় ৮০ শতাংশ তৈরীপোশাক। এরপর রয়েছে ওষুধ শিল্প, পাট ও পাটজাত পণ্য, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, বাই-সাইকেল, সিরামিক্স, সেনিটারিওয়্যার ইত্যাদি। তবে দেশে অনেকগুলো সম্ভাবনাময় খাত রয়েছে যেগুলো যথাযথ কারিগরি উন্নয়ন ও নীতি সহায়তা পেলে রফতানির ক্ষেত্রে নতুন দিগন্তের সূচনা করতে পারে। এর জন্য শিল্পায়নে বিদ্যমান সমস্যাসমূহ চিহ্নিত করে উল্লেখিত প্রকল্পের আওতায় তা সমাধান করতে হবে।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ ওবায়দুল আজম বলেন, সরকার প্লাষ্টিক, হালকা ইঞ্জিনিয়ারিং, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য এবং ফুটওয়্যার রফতানি পণ্য বহুমুখীকরণ, দক্ষ জনবল তৈরী এবং কারিগরি উন্নয়নের লক্ষ্যে বিশ্ব ব্যাংকের সহায়তায় ইসি-ফোরজে প্রকল্পের মাধ্যমে মিরসরাই ইকনোমিক জোনে ১০ একর জায়গায় একটি টেকনোলজি সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় এ সেন্টার পরিচালনা করা হবে।
সভায় বক্তারা মান নির্ণয় ও প্রত্যয়নকারী প্রতিষ্ঠান স্থাপন, চট্টগ্রাম নগরীতে সেবা প্রদানের জন্য অফিস স্থাপন, কেমিক্যাল কম্পোজিশন টেস্ট, মেটাল ল্যাব টেস্ট, হিট ম্যানেজমেন্ট, নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, উন্নতমানের ডাইজ ডিজাইন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, টেস্টিং ফ্যাসিলিটি বৃদ্ধি করা ইত্যাদি বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কর্মসংস্থান

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ