Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১৪ মাঘ ১৪২৭, ১৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ১ নাসিরনগর আসনে আওয়ামীলীগের এক ডজন, বিএনপির ধোঁয়াশায় চমক দেখাতে মরিয়া এরশাদের প্রার্থীরা

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০১৮, ৯:৫২ পিএম

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ১, সংসদীয় ২৪৩ আসন নাসিরনগরে আওয়ামীলীগ,মহাজোটের শরীক দল জাতীয় পার্টি ও অন্যান্য শরীক দল থেকে সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণা ও দৌড়ঝাপ শুরু করেছে। তবে বিএনপির একক প্রার্থী থাকলেও ধোঁয়াশার মধ্যে রয়েছেন নেতা-কর্মীরা। দিন যতই ঘনিয়ে আসছে নির্বাচনী হাওয়া ততই বাড়ছে। উদ্দীপনাও দেখা দিয়েছে নেতা-কর্মীদের মাঝে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও নেতাদের ছবি ও দোয়া চেয়ে চালোনো হচ্ছে ব্যাপক প্রচারণা। ১৩টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ১ নাসিরনগর আসনে লোকসংখ্যা সাড়ে ৩ লক্ষ। মোট ভোটার সংখ্যা ২ লক্ষ ১৩ হাজার ৯ শত ৭০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ১০ হাজার ৪ শত ৪৭জন ও মহিলা ভোটার সংখ্যা ১ লক্ষ ৩ হাজার ৫ শত ২৩ জন।

এদিকে নির্বাচনে অংশ নিতে আওয়ামী লীগ আগে থেকেই মাঠে নামলেও বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্দেশের অপেক্ষায় রয়েছে। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এই নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রায় এক ডজন প্রার্থী থাকলেও বিএনপি একক প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। বিএনপি এই আসনটিতে কখনো জয়লাভ করতে পারেনি। বিগত ১০টি সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ পাঁচবার,জাতীয় পার্টি তিনবার এবং স্বতন্ত্র দুই বার এ আসনে জয়লাভ করে। সৎ মানুষ হিসেবে খ্যাত মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট ছায়েদুল হক এমপির মুত্যৃতে ২০১৭ সালের ১৩ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ নাসিরনগর আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করায় আওয়ামীলীগ প্রার্থী বদরুদ্দোজা মো. ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম (নৌকা), জাতীয় পার্টির প্রার্থী রেজোয়ান আহমেদকে (লাঙ্গল) হারিয়ে বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হন।

৬ মাস যেতে না যেতেই আবার একাদশ সংসদ নির্বাচন। বর্তমান এমপি বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রামকে আবারও নির্বাচিত করতে পস্তুুতি নিচ্ছে তৃণমূল আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। বর্তমান এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই প্রতিটি গ্রামগঞ্জের উন্নয়নের স্বার্থে ছুটে চলেছেন। করছেন গণসংযোগ ও কর্মী সমাবেশ। তবে আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন মনোনয়ন প্রত্যাশী মাঠে সক্রিয় থাকলেও বিএনপির রয়েছেন একজন প্রার্থী। আর জাতীয় পার্টি (এরশাদ) জোট থেকে রয়েছেন তিনজন প্রার্থী।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রার্থীরা হলেন, বর্তমান সাংসদ বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম, প্রয়াত মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর সহধর্মিণী আলহাজ্ব দিলশাদ আরা বেগম মিনু,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার,কেন্দ্রীয় কৃষক লীগ নেতা এমএ করিম,যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি সৈয়দ মোহাম্মদ এহসান,যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি একেএম আলমগীর,কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ মো. নাজির মিয়া,বাংলাদেশ আওয়ামী প্রজম্ম লীগের সহ-সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. ইহতেশামুল কামাল,জেলা কৃষক লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য মো. আলী আশ্রাফ, বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের আইন বিষয়ক সম্পাদক রাখেশ চন্দ্র সরকার,বাংলাদেশ হিন্দু,বৌদ্ধ,খ্রিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদ নাসিরনগরের সভাপতি আদেশ চন্দ্র দেব,কেন্ত্রীয় যুব মহিলালীগের শিক্ষা,পাঠাগার ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এম,বি কানিজ।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ সৈয়দ একে একরামুজ্জামান একাই বিএনপির প্রার্থী। এখানে বিএনপিতে নেই কোন্দল ও মনোনয়নের লড়াই। কোন হাঁক-ডাকও নেই।

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় জাতীয় কৃষক পার্টির নির্বাহী কমিটির সদস্য শাহানুল করিম মাঠ চষে বেড়ালেও সেলিমের বড়ভাই কেন্দ্রীয় নেতা রেজোয়ান আহমেদও মনোনয়ন প্রত্যাশী। তবে এরশাদের জোট থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট ইসলাম উদ্দিন দুলাল ব্যপক প্রচারণার মাধ্যমে প্রতিটি কর্মী সভা ও গণসংযোগ করে যাচ্ছেন যা আগামী নির্বাচনে তার জন্য একটি সূবর্ণ সুযোগ এনে দিতে পারে বলে মনে করছেন ফ্রন্টের নেতারা। এর জন্যই দৈনিক নয়া দিগন্তে প্রকাশিত গোপন মিটিংয়ে এরশাদের মনোনয়ন তালিকাতে অত্র আসনের জন্য এ্যাডভোকেট ইসলাম উদ্দিন দুলালের নাম প্রকাশ করা হয়েছে । অপর দিকে এরশাদ জোটে থাকা বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মাওলানা হাফেজ যুবায়ের আহমদ আনসারীও সংবাদ সম্মেলন প্রচারণা ও গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। তিনি বলছেন আমাকে জোট থেকে মনোনয়ন দিলে আমি জয়লাভ করব ইনশাআল্লাহ । কেননা নাসিরনগরের মানুষ ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে আমাকে ভালবাসে। এজন্য আমাকে জোট থেকে মনোনয়ন দিবে বলে অনেকটাই আশাবাদী। সবশেষে বলা যায় প্রয়াত মন্ত্রীর বিয়োগে যেভাবে আওয়ামীলীগে কোন্দল ও বিএনপির মধ্যে ধোঁয়াশার সৃৃৃষ্টি হয়েছে সুষ্টু নির্বাাচন অনুষ্ঠিত এবারও ব্যতিক্রম কিছু দেখা যেতে পারে বলে আশা করছেন অনেকেই ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ