Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২১ জুলাই ২০১৯, ০৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৭ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পদ্মাসেতু নদীর নামেই হবে -প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত জানালেন সেতুমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

নদীর নামেই পদ্মাসেতুর নামকরণ করার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একথা জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী বিশ্বব্যাংকের সহায়তা ছাড়াই নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণের যে চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছিলেন সেজন্য সংসদ সদস্য, বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ ও সাংস্কৃতিক সংগঠকরা তার নামে এই সেতুর নামকরণ করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। এই প্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই সেতুর নাম ‘শেখ হাসিনা পদ্মাসেতু’ করার প্রস্তাব করে সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হলে তিনি সেই প্রস্তাব নাকচ করে দেন। প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর পরিবারের কোনো সদস্যের নামে এ সেতুর নামকরণ করা হোক তা চাননি। তাই তিনি নদীর নামেই এ সেতুর নাম নদীর নামে পদ্মাসেতু করার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত লিখনকে দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি প্রধানমন্ত্রীর মনোভাবের কথা জানান। কোটা বহালের পক্ষে আন্দোলন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, মানুষের দুর্ভোগ হয় এমন কর্মসূচি তারা কখনো করবেন না, তারা উঠে যাবে। তারা কারো উস্কানিতে পা দেবে না। তিনি আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করেছে বিএনপি। আর এখন তারা মুক্তিযোদ্ধা কোটার পক্ষে কথা বলার অর্থ হলো ‘ডাল মে কুচ কালা হ্যায়’।
আন্দোলনকারীদের দাবি-দাওয়া কী আগে তা দেখা যাক। তারপর এ বিষয়ে কথা বলা যাবে। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বঙ্গবন্ধুর কন্যা যা করেছেন, তা অন্য কেউ করেননি। মুক্তিযোদ্ধাদের বিষয়ে কারো কোনো দাবি জানাতে হবে না। তবে কোনো বিষয় ন্যায় ও বাস্তবসম্মত হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবশ্যই তা দেখবেন।
মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি বিএনপি’র আগ্রহের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, যে দল মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সবচেয়ে ক্ষতি করেছে তারা যখন মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি ভালোবাসা দেখায় তখন আমার সন্দেহ হয়। ডাল মে কুছ কালা হে।
ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন লিখনের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের জানান, ছেলেটি দীর্ঘদিন ধরে বিরল রোগে আক্রান্ত। এ পর্যন্ত ৩১ বার তার হাড় ভেঙে গেছে। গত বছর সংবাদপত্রে এ ছেলেটির বিষয়ে জানার পর তার চিকিৎসার ভার তিনি নিজে গ্রহণ করেছেন। একবার তার অস্ত্রোপচার হয়েছে। আবারো হবে। এ রোগের চিকিৎসা একটু ব্যয়বহুল। এসময় তিনি বান্দরবানের থানচির একটি শিশু এবং ইডেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে এক পঙ্গু শিক্ষার্থীর চিকিৎসার ভার নেওয়ার কথাও জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সেতুমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ