Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫, ০৬ সফর ১৪৪০ হিজরী

ইভিএমে ভোটের ফল পরিবর্তনের চিত্র দেখালেন বিজ্ঞানীরা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

যুক্তরাষ্ট্রে আসন্ন মধ্যবর্তী নির্বাচনে কত সহজে ইভিএম হ্যাক করা যেতে পারে তাই হাতেনাতে দেখিয়ে দিয়েছেন সে দেশের কয়েকজন বিজ্ঞানী। মার্কিন কম্পিউটার বিজ্ঞানী এলেক্স হাল্ডারম্যান দেখিয়েছেন কত সহজে ইলেষ্ট্রনিক ভোটিং মেশিন হ্যাক করে ভোটের ফলাফল পরিবর্তন করা সম্ভব। এভাবে নির্বাচনকে প্রভাবিত করা হলে কারা ও কিভাবে তা করেছে বা আদৌ নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে কিনা তা ধরার কোনো উপায়ও থাকে না সেটাও দেখিয়ে দিয়েছেন হাল্ডারম্যান। বার্তা সংস্থা এএফপি এ তথ্য প্রকাশ করেছে।
বার্তা সংস্থা এএফপি গত রোববার জানায় গত মাসে বোস্টনের এক প্রযুক্তি সম্মেলনে মার্কিন কম্পিউটার বিজ্ঞানী এলেক্স হাল্ডারম্যান বিষয়টি সবার সামনে স্পষ্ট করেন। তিনি একটি ছদ্ম নির্বাচনের আয়োজন করেন যেখানে সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী তিন জন ভোটার ইভিএমের মাধ্যমে জর্জ ওয়াশিংটনের পক্ষে ভোট দেন। কিন্তু হ্যাকিংয়ের শিকার মেমোরি কার্ডে ফলাফল আসে জর্জ ওয়াশিংটন পেয়েছেন ১ ভোট আর বেনেডিক্ট আরনল্ড পেয়েছেন ২ ভোট। সামরিক কর্মকর্তা বেনেডিক্ট রেভোল্যুশনারি ওয়ারের সময় গোপন তথ্য বিক্রি করেন।
হাল্ডারম্যান যে ভোটিং মেশিনকে সহজেই হ্যাকিং করা যায় বলে দেখালেন, তা যুক্তরাষ্ট্রের ২০টি অঙ্গরাজ্যে ব্যবহৃত হয়। এই মেশিনের কোনো ব্যালট পেপার নেই। আর তাই ভোটের ফলাফল পাল্টে দিলে তা ধরার বা চ্যালেঞ্জ করার কোনো উপায় থাকে না। যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের মধ্যবর্তী নির্বাচনের মাত্র এক মাস আগে নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা জানান, ভোটিং মেশিন ও অন্যান্য লক্ষ্যবস্তুগুলো হ্যাকিং হওয়ার বড় ধরণের ঝুঁকিতে রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের দুই বছর পর মধ্যবর্তী নির্বাচনটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মতে, রুশ এজেন্টরা যুক্তরাষ্ট্রের গত নির্বাচনে অন্তত ২০টি রাজ্যে ভোটার রেজিষ্ট্রেশন নেটওয়ার্কে হ্যাকিংয়ের চেষ্ট করেছে এবং অন্তত একটিতে তারা সফল হয়েছে।
বিজ্ঞানী এলেক্স বলেন, রুশদের ভোটিং রেকর্ড নষ্ট বা পরিবর্তন করার সক্ষমতা রয়েছে, যা নির্বাচনের দিন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারে। এমনকি সিনেট ইন্টিলিজেন্স কমিটির তদন্তেও তারা রুশদের ওই সক্ষমতার বিষয়টি তুলে ধরেননি। সম্মেলনে অন্যান্য গবেষকরা দেখিয়েছেন, ভোটিং মেশিং অথবা নেটওয়ার্কে হ্যাকিং সম্ভব। এখনো যুক্তরাষ্ট্রের ২০ থেকে ২৫ শতাংশ ভোটার ভোটিং মেশিনের সাহায্যেই তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সম্মেলনে গবেষকরা যেসব নির্বাচনী ব্যবস্থায় পেপার ব্যাকআপ নেই, সেগুলো পরিবর্তন করে নতুন পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করতে বলেছেন। #



 

Show all comments
  • Afaj ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১:৫৩ এএম says : 0
    Yes bgganira sotik bolsen .manuser bbek misin bodle dite pare.এখানে আপনি আপনার মন্তব্য করতে পারেন
    Total Reply(0) Reply
  • Kamrul Hasan ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১:৫৫ পিএম says : 0
    সেই জন্যই নির্বাচন কমিশনের ইভিএম আনার জন্য এত তোড়জোড় ।
    Total Reply(0) Reply
  • MD Sawkat ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১:৫৫ পিএম says : 0
    ডিজিটাল চুরি
    Total Reply(0) Reply
  • Yousuf ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১:৫৬ পিএম says : 0
    ইভিএম মানে ডিজিটাল কারচুপি
    Total Reply(0) Reply
  • Aurangjeb ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ৮:০৮ পিএম says : 0
    E v m bad die a m lig vote pas korbe
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ