Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ৩ কার্তিক ১৪২৫, ০৭ সফর ১৪৪০ হিজরী

প্রশ্ন : আমি হিজাব করি। কলেজে আসা-যাওয়ার জন্য বাস/ম্যাক্সি ব্যবহার করি। প্রায় প্রতিদিনই কিছু অসভ্য লোক বিভিন্নভাবে যৌন হয়রানি করে। আমি আল্লাহর কাছে এর প্রতিকার চাই। এদের কী বিচার হবে?

ইসাইনা
ঢাকা

প্রকাশের সময় : ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:১৩ এএম

উত্তর : হিজাব পরেন শুনে খুশি হলাম। এটি আল্লাহর ফরজ হুকুম। যেহেতু কলেজে আসা-যাওয়া করতেই হয়, চেষ্টা করবেন কোনো মহিলা বা শিশুর পাশে বসতে। কমপক্ষে সুন্নতি লেবাস পরা ব্যক্তিত্ববান ও বয়সী মানুষের পাশে বসাও ভালো। যারা নারীর সম্মান বোঝে না, তারাই যৌন হয়রানি করে। চলাচলে এদের সাথে বসতেই হয়। যতদূর পারেন নিজেকে গুটিয়ে রাখবেন। বেশি বাড়াবাড়ি হয়ে গেলে প্রতিবাদ ও হৈ চৈ করবেন। এসব ভবিষ্যত বিপদ বা অনিরাপত্তার কারণ হলে এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। আপনার পরিবেশ পরিস্থিতি আপনি বেশি বুঝবেন। আল্লাহর কাছে এসব লোকের শাস্তি বড়ই কঠোর। তাদের শাস্তি ডাবল হবে। এক. ইচ্ছা ও আচরণে ধর্ষণের পাপ। দুই. একজন মানুষকে কষ্ট দেয়ার পাপ। শরিয়তে এ দু’টোই হারাম। আমাদের রাষ্ট্র ও সমাজব্যবস্থা ত্রু টিযুক্ত হওয়ায় আপনার ও আপনার মতো লাখো নারীর কষ্ট পোহাতে হচ্ছে। ইসলামি ব্যবস্থা কার্যকর থাকলে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়ে এসব অসভ্যকে সোজা করে ফেলা হতো।

সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতাওয়া বিশ্বকোষ।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
inqilabqna@gmail.com



 

Show all comments
  • হোসাইন আহমেদ ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ৫:২০ পিএম says : 0
    Nice
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ