Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

রাত জেগে দিনে ঘুমালে ডায়াবেটিস হতে পারে

প্রকাশের সময় : ২৭ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রাতে বিছানায় শুয়ে শুধু এপাশ আর ওপাশ। ঘুমের ওষুধ খেয়েও কোনো লাভ হচ্ছে না। রাতে ঘুম নেই অথচ দিনের বেলায় ঘুমে ঢুলছেন। ভাবছেন এসব মামুলি সমস্যা! রাতে পর্যাপ্ত ঘুম না-হওয়ায় দিনের বেলায় ঘুমিয়ে পড়েছেন। এতটা ছাড় কিন্তু দেবেন না। সময় থাকতে সাবধান হোন। অজান্তেই ডায়াবেটিসের কবলে পড়ছেন না তো? কারণ, দিনের বেলায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘুম বাড়াচ্ছে টাইপ-২ ডায়াবেটিসের আশঙ্কা।

টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল জাপানি গবেষকের সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য। তেমোহিদো ইয়ামাদা-এর নেতৃত্ব একদল জাপানি গবেষক এই গবেষণা করেছেন। দিনের বেলায় ঘুমের সঙ্গে কি সম্পর্ক আছে ডায়াবেটিসের? গবেষকরা জানিয়েছেন, অবস্ট্রকটিভ স্লিপ অ্যাপনিয়া -এমন একটি রোগ যার কারণে রাতের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে। আক্রান্ত ব্যক্তি রাতে ঘুমোতে পারেন না। পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়ার কারণে দিনের বেলায় ঝিমোতে থাকেন রোগী। এটা বাড়ায় হার্ট ডিজিজ বা হৃৎপি-ের ধমনীতে ব্লকেজের সম্ভাবনা। এছাড়াও স্ট্রোক বা বিভিন্ন কার্ডিওভাসকুলার রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। মরণ রোগ তিলে তিলে ঠেলে দেয় মৃত্যুর দিকে। সেই সঙ্গে দিনের বেলায় ঘুমের পুরো চক্র সম্পূর্ণ নাও হতে পারে। রোগটি পরিচিত স্লিপ ইনারসিয়া নামে। এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির ঘুমে আচ্ছন্ন ভাব, অস্থিরতা বৃদ্ধি পায়। তবে হতাশা হবেন না। ভরসার কথাও শুনিয়েছেন টোকিওর গবেষকরা। তারা জানিয়েছেন, দিনের বেলায় আধঘণ্টার ছোট্ট ঘুম বাড়ায় শরীরে চনমনে ভাব। তাই ক্ষতিকারক নয় ছোট্ট ঘুম। কিন্তু কোনোভাবে যদি মিনিট তিরিশের বেশি ঘুমোন কেউ, তবে কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলার পক্ষে যথেষ্ট। দিনের বেলায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘুমের জন্য ডায়াবেটিসের আশঙ্কা বৃদ্ধি পায় অন্তত ৫৬ শতাংশ। আড়াই লাখের বেশি মানুষের ওপর ৬৮৩টি ফিনল্যান্ড, চিন এবং জার্মানিতে চালানো হয় এই সমীক্ষা। প্রধানত তিনটি বিষয়ের ওপর জোর দেয়া হয়। * দিনের বেলায় ঘুমে অসুবিধা হচ্ছে কি না? * দিনের বেলায় ঘুমোন কি? * কত ঘণ্টা ঘুমোন দিনের বেলায়?
ষ আফতাব চৌধুরী
সাংবাদিক-কলামিস্ট।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন