Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯, ০১ শ্রাবণ ১৪২৬, ১২ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

পরিদর্শক প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ অক্টোবর, ২০১৮, ৮:৩৩ পিএম | আপডেট : ১২:২০ এএম, ৯ অক্টোবর, ২০১৮

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক পরিদর্শকদের প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির নেতা কিম জং উন রাশিয়া ও চীনের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করতে চেয়েছেন। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সোমবার এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানান।
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, উত্তর কোরিয়ার নেতা সে দেশের পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র স্থাপনায় আন্তর্জাতিক পরিদর্শকদের প্রবেশের অনুমতি দিতে প্রস্তুত৷ রবিবার তিনি পিয়ং ইয়ং সফর করে কিম-এর সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করেছেন৷ তাঁদের মধ্যে বোঝাপড়া অনুযায়ী, দুই পক্ষের মধ্যে খুঁটিনাটি বিষয়গুলি নিয়ে বোঝাপড়া হলেই পরিদর্শকরা সে দেশের একমাত্র সরকারি পরমাণু স্থাপনায় প্রবেশ করতে পারবেন৷
পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের ক্ষেত্রে উত্তর কোরিয়া সত্যি কতটা আন্তরিক, তা নিয়ে বার বার প্রশ্ন উঠছে৷ গত জুন মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন সিঙ্গাপুরে সরাসরি এ বিষয়ে আলোচনা করলেও কার্যক্ষেত্রে তেমন অগ্রগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে না৷ দুই পক্ষের মধ্যে এতকাল উচ্চ পর্যায়ে আলোচনাও বার বার স্থগিত রাখা হয়েছে৷
পম্পেও আরও জানিয়েছেন, কিম ও ট্রাম্পের মধ্যে প্রস্তাবিত দ্বিতীয় শীর্ষ বৈঠকের দিনক্ষণ নিয়েও অগ্রগতি হচ্ছে৷ তিনি বেইজিং সফর করে উত্তর কোরিয়ার ‘চূড়ান্ত ও সম্পূর্ণ যাচাইযোগ্য' পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের লক্ষ্যে কাজ করতে চান৷
আন্তর্জাতিক মঞ্চে আরো সক্রিয় হয়ে উঠছেন কিম জং উন৷ শুধু যুক্তরাষ্ট্র নয়, চীন ও রাশিয়ার সঙ্গেও উচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ বাড়াচ্ছেন তিনি৷ দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন বলেন, কোরীয় উপদ্বীপে উত্তেজনা কমাতে কূটনৈতিক উদ্দ্যোগের আওতায় কিম অদূর ভবিষ্যতেই চীন ও রাশিয়ার শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন৷
উল্লেখ্য, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এর আগেই কিমকে মস্কো সফরের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন৷ এমন কূটনৈতিক তৎপরতার আওতায় উত্তর কোরিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী চো সোন হুই শনিবার বেইজিং সফর করেছেন৷ এরপর তিনি মস্কো সফর করে রাশিয়ার সরকারের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করবেন৷ অবশেষে এক ত্রিপাক্ষিক আলোচনারও পরিকল্পনা রয়েছে৷
এমনকি জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে-র সঙ্গেও উত্তর কোরিয়ার নেতার আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট৷ সূত্র: রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: উত্তর কোরিয়া

২৭ এপ্রিল, ২০১৯
১০ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন