Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সাগরে ঘনীভূত হচ্ছে নিম্নচাপ

উপকূলে গুমোট আবহাওয়া : বন্দরে সতর্ক সঙ্কেত

বিশেষ সংবাদদাতা, চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০১ এএম

বঙ্গোপসাগরে গতকাল সৃষ্ট নিম্নচাপটি আরও ঘনীভূত হচ্ছে। প্রাথমিক গতি-প্রকৃতি অনুসারে নিম্নচাপটি বাংলাদেশ-ভারত উপকূল বরাবর অগ্রসর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে উপকূলের দিকে ধাবিত হওয়ার যে কোনো সময়েই গতিপথ পরিবর্তনও হতে পারে। নিম্নচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল হয়ে উঠেছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে এক নম্বর সতর্ক সঙ্কেত দেখাতে বলা হয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু প্রবাহ (বর্ষা) বিদায়ের তিন দিন পরই সমুদ্রে সৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে দেশের আবহাওয়ায় পালাবদলের সম্ভাবনা রয়েছে। এটি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে যেতে পারে।
নিম্নচাপের প্রভাবে গতকাল (সোমবার) অনেক জায়গায় টানা খরতপ্ত আবহাওয়ায় ভ্যাপসা গরমের দাপট কিছুটা হলেও কমেছে। বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ উপকূলীয় অঞ্চলের আকাশ মেঘলা, মাঝে মধ্যে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি এবং কোথাও কোথাও গুমোট আবহাওয়া বিরাজ করছে। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রামে প্রায় এক ঘণ্টার মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণ জনজীবনে স্বস্তি এনে দেয়।
এদিকে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন উত্তর আন্দামান সাগরে গত রোববার সন্ধ্যায় সৃষ্ট লঘুচাপটি ক্রমেই ঘনীভূত হয়ে গতকাল সোমবার সকালে একই এলাকায় সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়। এরপর সুস্পষ্ট লঘুচাপটি উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে আরো শক্তি সঞ্চয় করে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও এর সংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় গতকাল দুপুর নাগাদ নিম্নচাপে পরিণত হয়।
গতকাল রাতে সর্বশেষ বিশেষ বুলেটিনে আবহাওয়াবিদ খোন্দকার হাফিজুর রহমান জানান, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপটি সামান্য উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় (১৪.৪ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮.৩ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশ) অবস্থান করছে। এটি গতকাল সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৮০ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯০৫ কিমি দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ৮৭০ কিমি দক্ষিণ, দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। নিম্নচাপটি আরও উত্তর, উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হতে পারে।
নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিমি, যা দমকা থেকে ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কিমি পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। সাগর মাঝারী ধরনের উত্তাল রয়েছে।
চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমূদ্র বন্দরকে এক নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সঙ্কেত দেখাতে বলা হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে জানা গেছে, রংপুর, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে। দেশের অন্যত্র আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। গতকাল চট্টগ্রাম, টেকনাফ, কুতুবদিয়া, সৈয়দপুর, রাজারহাট, রাজারহাট, পটুয়াখালীতে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বর্ষণ হয় টেকনাফে ৩৭ মিলিমিটার। এ সময় চট্টগ্রামে বৃষ্টিপাতের পরিমান ৩ মিমি। দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল খুলনায় খুলনায় ৩৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪.৮ এবং সর্বনিম্ন ২৫.২ ডিগ্রি সে.। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল গতকালও তেঁতুলিয়ায় ২১ ডিগ্রি সে.।



 

Show all comments

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিম্নচাপ


আরও
আরও পড়ুন