Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২ পৌষ ১৪২৫, ৮ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

ভাল মন্দের রহস্যে ঘেরা তিল!

ফেরদৌসী রহমান | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৮, ৮:২৮ পিএম

লোকের অঙ্গ বিশেষে এক প্রকার ছোট ছোট কাল চিহ্ন দেখা যায় এটি তিল দাগ নামে পরিচিত। শরীরের এই লক্ষণগুলোকে একেবারে উদ্দেশ্যহীন বলে উড়িয়ে দেয়া যায় না। আপনার ভবিষ্যত কেমন, তা অনেকটাই নির্ভর করে আপনার কর্মের উপর। আর কিছুটা হল আপনার ভাগ্য, যা মানুষ জন্মগত ভাবে পেয়ে থাকে। তবে ভাগ্য বদলের ক্ষেত্রেও কঠোর পরিশ্রমের কোনও বিকল্প হয়না। তিলশাস্ত্র মতে, ভাগ্য বা ভবিষ্যত গড়ে তোলার মতো কিছু বিষয় মানুষ জন্মগত ভাবেই পেয়ে থাকে। শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তিলের অবস্থান ভাগ্য বা ভবিষ্যত সম্পর্কে শুভ-অশুভ নানা বিষয়কে ইঙ্গিত করে, শুধু তার অর্থ বুঝে নিতে হবে। আসুন দেখি আমাদের ভাগ্য সম্পর্কে তিল কি বলে!

ললাটে তিল: তিল দাগ যদি ললাটে থাকে তাহলে সেই মানুষটি মহা ভাগ্যবান হবে। ললাটের ডান দিকে তিল থাকিলে সৌভাগ্যবান ও ধার্মিক হবে।ললাটের মাঝে তিল থাকলে বুদ্ধির বিকাশ হয়। আর বাঁ দিকে তিল থাকার অর্থ আপনি খুবই ভাগ্যবান।
ঠোঁটে তিল: ঠোঁটের ঠিক ওপরেই তিল থাকলে বুঝতে হবে খুব অল্প বয়স থেকেই সেই ব্যক্তি বা মহিলা প্রভূত সম্পত্তির অধিকারী হয়ে উঠবেন। এঁরা একটু জেদি স্বভাবের হন।তবে ঠোঁটের নিচে তিল থাকলে সেই মানুষটি দারিদ্র্য বিরাজ করে।
নাকের ডান দিকে তিল: নাকের ডানদিকে যদি তিল থাকে তাহলে সেই মানুষটির ধনী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা প্রবল । ৩০ বছর বয়স থেকেই এঁরা সাফল্যের সিঁড়ি চড়তে থাকেন।
ডান হাতে তিল: তিল যদি ডান হাতের তালুতে থাকে, তাহলে সেই ব্যক্তি বেশ ধনী হয়। খুব কম বয়স থেকে এঁরা সম্পত্তি পেতে থাকেন। ফলে সহজেই ধনী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এঁদের।
কোমরে তিল: কোমরে তিল থাকলেও ধনী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থাকে । যাঁদের কোমরে তিল থাকে তাঁদের সম্পত্তি সমৃদ্ধি অনেক বেশি থাকে ।
তিলশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের মতে, পিঠে, নাভির আশেপাশে, বা চিবুকে তিল থাকলেও ধনী হওয়ার সম্ভাবনা অনেক থাকে। পাশাপাশি বুকে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি বা মহিলা সহজে ধনী হন, এঁরা খুবই শান্তিপূর্ণ জীবন যাপন করেন। কানের আশপাশে তিল থাকলেও তাঁর ধনী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যাদের ভ্রুতে তিল থাকে তারা প্রায়ই ভ্রমণ করেন। ডান ভ্রুতে তিল থাকলে ব্যক্তির দাম্পত্য জীবন সুখী হয়। আবার বাঁ ভ্রুর তিল দুঃখী দাম্পত্য জীবনের সঙ্কেত দেয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর