Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

জর্ডানে শ্রমবাজার চালু হচ্ছে

এক বছর বন্ধ থাকার পর

শামসুল ইসলাম : | প্রকাশের সময় : ১০ অক্টোবর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানে পুনরায় শ্রমবাজার চালু হচ্ছে। জর্ডানে প্রচুর বাংলাদেশী মহিলা গৃহকর্মীর চাহিদা রয়েছে। বর্তমানে দেশটিতে লক্ষাধিক মহিলা কর্মী কাজ করে প্রচুর রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছে। দীর্ঘ এক বছর মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগ বন্ধ থাকার পর গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশী রিক্রুটিং এজেন্সীগুলো কর্মী নিয়োগের ভিসা পেতে শুরু করেছে। জর্ডান সরকার নতুন নিয়মে বাংলাদেশী মহিলা গৃহকর্মীদের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স বাধ্যতামূলক করেছে। জর্ডানের রাজধানী আম্মানে নিযুক্ত বাংলাদেশী দূতাবাস কর্তৃপক্ষ নতুন ভিসায় সত্যায়ন দেয়া শুরু করেছে। আগামী সপ্তাহ থেকে বর্হিগমন ছাড়পত্র নিয়ে নতুন ভাবে মহিলা গৃহকর্মী জর্ডানে যাওয়া শুরু করবে। নির্ভরযোগ্য সূত্র এতথ্য জানিয়েছে। জর্ডানের আম্মানে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম সচিব মনিরুজ্জামান গতকাল রাতে ইনকিলাবকে বলেন, এক বছর কর্মী নিয়োগ বন্ধ থাকার পর গত সপ্তাহ থেকে জর্ডান সরকার বাংলাদেশী মহিলা কর্মীদের ভিসা দেয়া শুরু করেছে। এ যাবত নতুন ৬০ টি ভিসা পাওয়া গেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
বিএমইটির সূত্র মতে, ২০১৬ সনে জর্ডানে ২৩ হাজার ১৭ জন মহিলা গৃহকর্মী চাকুরি লাভ করেছে। ২০১৭ সনে দেশটিতে ২০ হাজার ৪শ ৪৯ জন মহিলা গৃহকর্মী চাকুরি লাভ করেছে। পূর্বের ইস্যুকৃত ৫ হাজার ৩৮ জন মহিলা গৃহকর্মী গত ৯ মাসে জর্ডানে গেছে। ২০১১ সনে জর্ডানে মহিলা গৃহকর্মী নিযোগ সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারকে মহিলা গৃহকর্মী প্রেরণে প্রসেসিং ফি ৩শ মার্কিন ডলার এবং টিকিটসহ অন্যান্য ফি ৪শ মার্কিন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে। জর্ডানে কর্মরত মহিলা গৃহকর্মীরা থাকা-খাওয়া ফি এবং প্রতি মাসে ২শ মার্কিন ডলার থেকে আড়াইশ মার্কিন ডলার বেতন পাচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৭ সনে জর্ডানে কর্মরত বাংলাদেশী মহিলা গৃহকর্মী মাসুদা বেগম দুই জন বৃদ্ধা জর্ডানী নাগরিককে হত্যা করে। স্থানীয় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। এ মর্মান্তিক ঘটনার পর পর বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ বন্ধ করে দেয় জর্ডান সরকার। জর্ডানের শ্রমবাজার চালু করণে কার্যকরী উদ্যোগ নেয়ার জন্য ফিমেল ওয়ার্কার রিক্রুটিং এজেন্সীজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ফোরাব)-এর সভাপতি মোঃ টিপু সুলতান গত ২৩ জুলাই ডোমেস্টিক ওয়ার্কার্স এসোসিয়েশন অব জর্ডান-এর প্রেসিডেন্টের কাছে লিখিত প্রস্তাব পাঠান। জর্ডানের শ্রমবাজার চালু করতে লবিং চালাতে ফোরাবের পক্ষ থেকে সংগঠনের যুগ্ম-মহাসচিব আনোয়ার হোসেনকেও জর্ডানে পাঠানো হয়েছিল। গত দুমাস আগে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিবও জর্ডান সফর করে শ্রমবাজার চালুর জন্য ঐ দেশটির কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করেছিলেন।
গত দুই মাস আগে জর্ডান আদালত এক রায়ে তাকে ফাঁসির নিদের্শ দেয়। জর্ডানে নিযুক্ত শ্রম সচিব মনিরুজ্জামান জানান, মাসুদা বেগমের ফাঁসির আদেশের বিরুদ্ধে বাংলাদেশী দূতাবাসের আইনজীবির মাধ্যমে আদালমে আপীল করা হয়েছে। জর্ডানের জেল খানায় নানা কারণে প্রায় ৬০ জন মহিলা কর্মী আটক রয়েছে।
ফিমেল ওয়ার্কার রিক্রুটিং এজেন্সীজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ফোরাব)-এর সভাপতি মোঃ টিপু সুলতান গতকাল বলেছেন, জর্ডানে একজন বাংলাদেশী মহিলা গৃহকর্মীর দ্বারা একটি অপ্রীতিকর ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গত অক্টোবর থেকে জর্ডানের শ্রমবাজার বন্ধ ছিল। তিনি বলেন, জর্ডানে ডোমেস্টিক ওয়ার্কার্স এসোসিয়েশন অব জর্ডান গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশী মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগের লক্ষ্যে শতাধিক ভিসা ইস্যু করেছে। গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাজধানী ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল দুই জন মহিলা গৃহকর্মীর ভিসা লাভ করে। ফোরাবের যুগ্ম-মহাসচিব আনোয়ার হোসাইন জানান, গত ২ সেপ্টেম্বর এস আনোয়ার ওভারসীজ জর্ডান থেকে ৭ টি ভিসা লাভ করেছে। মহিলা রিক্রুটিং এজেন্সী অপরাজিতা ওভারসীজের স্বত্বাধিকারী ও ফোরাবের মহাসচিব আরিফুর রহমান জানান, গত ৮ অক্টোরব জর্ডানে মহিলা কর্মী নিয়োগের লক্ষ্যে ৫ টি ভিসা পাওয়া গেছে। তিনি বলেন, জর্ডানে প্রচুর মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগের চাহিদা রয়েছে। আম্মানস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস একজন মহিলা গৃহকর্মী নিয়োগের চাহিদাপত্রে সত্যায়ন দিয়েছে। আগামী সপ্তাহে জর্ডানের উদ্দেশ্যে মহিলা গৃহকর্মী যাত্রা শুরু করতে পারবে বলেও আরিফুর রহমান আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
শ্রম বিশ্লেষক হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ জর্ডানের শ্রমবাজার পুনরায় চালু প্রসঙ্গে বলেন, জর্ডানের জীবনমান খুবই উন্নত। জর্ডানের কর্মরত বাংলাদেশী মহিলা কর্মীরা যাতে কোনো প্রকার অনৈতিক কাজে জড়িয়ে না পড়ে সে দিকে নজর দিতে হবে। তিনি বলেন, সউদী আরবের রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাস অভিবাসী নারী কর্মীদের আইনী সহায়তা দিতে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। জর্ডানে গিয়েও যাতে বাংলাদেশী মহিলা কর্মীরা শর্তানুযায়ী বেতন এবং কর্মস্থলে নিরাপত্তা পায় তা নিশ্চিত করতে হবে।



 

Show all comments
  • মোঃসুমন রহমান ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৮:১১ পিএম says : 0
    জর্ডানে পুরুষ শ্রমীক নিচ্ছে কিনা এবং নিলে কি ধরনের কাজে নিচ্ছে,যাওয়ার খরচ কত,বেতন কত ও কিকি ফেসিলিটিস এই বিষয়গুলি জানতে চাই?দয়াকরে একটু বলবেন প্লীজ।
    Total Reply(0) Reply
  • এম ডি আপন ২২ জুন, ২০১৯, ১০:৪৮ পিএম says : 0
    ভাই পুরুষ পাঠানো যাবে জডান?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মধ্যপ্রাচ্যে


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ